নাশকতাকারীকে হাতেনাতে আটক করে পুরস্কার পেলেন ট্রাফিক ইন্সপেক্টর

বিএনপির চলমান হরতাল-অবরোধ কর্মসূচীতে নাশকতাকারীকে আটক করায় ট্রাফিক-মোহাম্মদপুর জোনের টিআই সরিফুল ইসলামকে পুরস্কৃত করেছেন ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমান।

আজ শনিবার (২৫ নভেম্বর) সকালে ডিএমপি হেডকোয়ার্টার্সে টিআই সরিফুল ইসলামকে (প্রশাসন) পুরস্কার তুলে দেন তিনি।

পুরস্কার প্রদানের পাশাপাশি ডিএমপি কমিশনার তার সাহসিকতার প্রশংসা করেন এবং ট্রাফিক-তেজগাঁও বিভাগের প্রতি আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান। পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) মো. মুনিবুর রহমান ও ট্রাফিক তেজগাঁও বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার মোস্তাক আহমেদ।

অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) মো. মুনিবুর রহমান বলেন, নাশকতাকারীদের ধরিয়ে দেয়ার ঘটনায় ডিএমপি কমিশনারের দেয়া এমন বিশেষ পুরস্কার সকল বিভাগের জন্য উৎসাহের বিষয়। এ ধরনের পুরস্কার প্রদানের ফলে পরবর্তীতে সাহসিকতার সঙ্গে নাশকতা প্রতিরোধে সকল বিভাগের সদস্যরা ভূমিকা রাখবে। এভাবে সকলে নিজ নিজ অবস্থান থেকে নাশকতা প্রতিহতের চেষ্টার মাধ্যমে সহিংসতা দূর করা যাবে।

নাশকতাকারী ধরিয়ে দেয়ার ঘটনা বর্ণনা করেন ট্রাফিক-তেজগাঁও বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার মোস্তাক আহমেদ। তিনি জানান, গত ১৯ নভেম্বর সকাল সাড়ে ছয়টার দিকে ট্রাফিক-মোহাম্মদপুর জোনের টিআই (প্রশাসন) সরিফুল ইসলাম জোন এলাকা পরিদর্শনে বের হন। পরিদর্শনকালে বেড়িবাঁধের মোহাম্মদীয়া হাউজিং লিমিটেডের মূল ফটকের সামনে সকাল সাতটার দিকে ৮-১০ জন অজ্ঞাত ব্যক্তিকে ‘হরতাল, হরতাল’ স্লোগানে নাশকতার উদ্দেশে একটি পরিবহন বাসের দিকে অবস্থায় অগ্রসর হতে দেখেন। তৎক্ষণাৎ টিআই সরিফুল ইসলাম দ্রুততম সময়ে আশপাশের ৩-৪ জনের সহযোগিতায় নাশকতা ঘটানোর আগেই দৃর্বৃত্তদের ধাওয়া করেন এবং একজনকে হাতেনাতে আটক করেন। যাকে পরবর্তী সময়ে মোহাম্মদপুর থানায় হস্তান্তর করা হয়। তার এই সাহসিকতাপূর্ণ কাজের স্বীকৃতিস্বরূপ ডিএমপি কমিশনার তাকে পুরস্কৃত করেন।

এর আগে আসাদগেট এলাকায় পরিবহন বাসে অগ্নিসংযোগ করে পলায়নরত একজন নাশকতাকারীকে হাতেনাতে আটক করায় ট্রাফিক-মোহাম্মদপুর জোনের সার্জেন্ট পলাশ কুমার রায় ও টিএসআই আতাবুলকে গত ২৩ নভেম্বর পুরস্কৃত করেন ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমান।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.