নির্বাচনের আগে গণপরিবহন ও ট্রেনে অগ্নিসংযোগ প্রসঙ্গে যা বললেন ম্যাথিউ মিলার

বাংলাদেশে রেলপথে হামলার বিষয়টি প্রশ্ন আকারে উপস্থাপিত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দফতরে। তবে এ বিষয়ে সুনির্দিষ্ট কোনো মন্তব্য না করে আসন্ন জাতীয় নির্বাচন নিয়ে আশাবাদ জানানো হয়। সেখানে বলা হয়, অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের অন্যতম উপাদান হলো সহিংসতা ছাড়া নির্বাচন পরিচালনা করা।

গতকাল বৃহস্পতিবার (১৪ ডিসেম্বর) ওয়াশিংটন ডিসির পররাষ্ট্র দফতরের আয়োজিত সংবাদ ব্রিফিংয়ে এক প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন মুখপাত্র ম্যাথিউ মিলার।

অবরোধের সময় ঘটা একাধিক সহিংসতার ঘটনাকে ‘নির্বাচনকে লাইনচ্যুত’ করার প্রয়াস হিসেবে বর্ণনা করেন এক সাংবাদিক। জানান, যাত্রীবাহী বাস ও ট্রাকে অগ্নিসংযোগ, রেললাইন ক্ষতিগ্রস্ত করা, ট্রেনের বগিতে পেট্রল বোমা হামলা, প্রত্যক্ষদর্শী বাস হেলপারদের জীবন্ত পুড়িয়ে মারার মতো ঘটনা ঘটছে। তিনি প্রশ্ন করেন, যুক্তরাষ্ট্র কি মনে করে এই ধরনের পদক্ষেপ বাংলাদেশে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের প্রক্রিয়াকে দুর্বল করতে পারে?

জবাবে মিলার যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থান পুনর্ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, আমাকে এখান থেকে ধারাবাহিকভাবে বলতে শুনেছেন যে যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন দেখতে চায়। আর অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের অন্যতম উপাদান হলো সহিংসতা ছাড়া নির্বাচন পরিচালনা করা।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.