অস্ট্রেলিয়ায় রেকর্ড বৃষ্টির পর ডুবল বিমানবন্দর, রাস্তায় ঘুরছে কুমির

 

রেকর্ড বৃষ্টিপাতে অস্ট্রেলিয়ায় ভয়াবহ বন্যার সৃষ্টি হয়েছে। বন্যার পানিতে ডুবে গেছে রাস্তাঘাট, এমনকি বিমানবন্দরও। শহরের রাস্তায় ঘুরে বেড়াচ্ছে কুমির। আবহাওয়া বিভাগ বলছে, অস্ট্রেলিয়ার সবচেয়ে ভয়াবহ বন্যা হতে পারে এবারের কুইন্সল্যান্ডের বন্যা। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।

কয়েক হাজার মানুষকে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়া হলেও অনেকে এখনো আটকা পড়ে আছেন।

রেকর্ড বৃষ্টিতে বন্যার পর অস্ট্রেলিয়ার ওই অঞ্চলের যেসব চিত্র দেখা যায় তাতে সামনে এসেছে কেয়ার্নস বিমানবন্দরের বিমানগুলো ডুবে গেছে। শহরের মাঝখানে কুমির দেখা যাচ্ছে। মানুষ নৌকায় করে বাড়ি ছেড়ে পালাচ্ছেন।

এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কোনও হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। প্রবল বৃষ্টিপাত আরও ২৪ ঘণ্টা থাকবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ।

কুইন্সল্যান্ডের প্রিমিয়ার স্টিভেন মাইলস অস্ট্রেলিয়ান ব্রডকাস্টিং কর্পোরেশনকে বলেছেন, আমি যতটা মনে করতে পারি প্রাকৃতিক এই বিপর্যয়টি অতীতের তুলনায় সবচেয়ে ভয়ংকর। আমি কেয়ার্নস শহরের স্থানীয়দের সাথে কথা বলছি এবং তারা বলছেন, তারা  এরকম কিছু কখনও দেখেনি। তিনি বলেন আমাদের  তাৎক্ষণিক উদ্বেগের বিষয় হলো ক্রমবর্ধমান পানিকে আটকে পড়াদের নিরাপত্তার জন্য নিরাপদ জায়গায় নিয়ে যাওয়া।

জরুরি কর্মীরা তাদের কাছে পৌঁছাতে না পারার পর অসুস্থ শিশুসহ নয়জন হাসপাতালের ছাদে রাত কাটিয়েছেন। সোমবার তাদেরকে অন্য জায়গায় স্থানান্তরিত করা হয়েছিল। এখন পুরো শহরটি খালি করা দরকার।

তিনি আরও বলেন এর পরে, আমাদের খাবার পানি, পয়ঃনিষ্কাশন, বিদ্যুৎ এবং টেলিযোগাযোগ, রাস্তাগুলোর অবস্থা সম্পর্কেও উদ্বেগ রয়েছে।  অনেক রাস্তা অবরুদ্ধ এবং আমরা সেখানেও আকাশপথেও যেতে পারছি না।

পূর্বাভাস প্রদানকারীরা  বলেছেন,  সোমবারের বেশিরভাগ সময় ধরে মুষলধারে বৃষ্টি অব্যাহত থাকবে।

অস্ট্রেলিয়ার পূর্বাঞ্চলে সম্প্রতি কয়েকবছর বন্যার সৃষ্টি হচ্ছে। সেই সঙ্গে দেশটিতে এল নিনো আবহাওয়ার কারণে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে স্থানীয় জনগণকে।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.