পোলিং এজেন্টদের প্রশিক্ষণ দেবে ইসি

জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পোলিং এজেন্টদের প্রশিক্ষণ দেবে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। প্রত্যেক প্রার্থীর পাঁচজনকে মাস্টার ট্রেইনার হিসাবে তিনশ আসনের প্রায় ১০ হাজার ব্যক্তিকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হবে। ২৯ ডিসেম্বর থেকে ৩ জানুয়ারির মধ্যে সুবিধাজনক সময়ে প্রশিক্ষণের আয়োজন করবেন রিটার্নিং কর্মকর্তারা।

আজ মঙ্গলবার এ সংক্রান্ত নির্দেশনা জেলা নির্বাচন কর্মকর্তাদের কাছে পাঠিয়েছে ইসি সচিবালয়। নির্বাচন কর্মকর্তারা জানান, জাতীয় সংসদ নির্বাচনে এত বড় আকারে এবারই প্রথম এ ধরনের প্রশিক্ষণের আয়োজন করছে নির্বাচনি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট (ইটিআই)।

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রার্থী রয়েছেন এক হাজার ৯৩৩ জন। এর মধ্যে এক হাজার ৫১৯ জন রাজনৈতিক দলের। বাকি ৪১৪ জন স্বতন্ত্র প্রার্থী।

প্রার্থীর পোলিং এজেন্টদের প্রশিক্ষণের বিষয়ে জানতে চাইলে নির্বাচনি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক এসএম আসাদুজ্জামান বলেন, প্রার্থীর পাঁচজন মাস্টার ট্রেইনারকে আমরা প্রশিক্ষণ দেব। ওই ট্রেইনাররা প্রার্থীর বাকি এজেন্টদের প্রশিক্ষণ দেবেন।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সব পোলিং এজেন্টকে নির্বাচন কমিশন প্রশিক্ষণ দেবে না। এর কারণ হচ্ছে-সবাইকে প্রশিক্ষণ দেওয়া হলে এজেন্টদের নাম আগেই প্রকাশ হয়ে যাবে, এতে তাদের নিরাপত্তা বিঘ্নিত হতে পারে এবং দ্বিতীয়ত, প্রশিক্ষণের সঙ্গে আর্থিক সংশ্লেষের বিষয় রয়েছে।

জেলা নির্বাচন কর্মকর্তাদের কাছে পাঠানো ইসির চিঠিতে রিটার্নিং কর্মকর্তাদের সঙ্গে পরামর্শ করে ২৯ ডিসেম্বর থেকে ৩ জানুয়ারির মধ্যে সংশ্লিষ্ট জেলা বা উপজেলায় প্রশিক্ষণ দিতে হবে। ওই প্রশিক্ষণে রিটার্নিং কর্মকর্তা, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা, অতিরিক্ত আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা, অতিরিক্ত জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা, সহকারী রিটার্নিং অফিসার, উপজেলা বা থানা নির্বাচন অফিসার ও ইটিআই কর্তৃক মনোনীত ব্যক্তিরা প্রশিক্ষক হিসাবে দায়িত্ব পালন করবেন।

ইটিআই কর্মকর্তারা জানান, জাতীয় সংসদ ও উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মোট ৩৩ হাজার পোলিং এজেন্ট প্রশিক্ষণ দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে ইসির। এর মধ্যে জাতীয় নির্বাচনে প্রায় ১০ হাজার এবং উপজেলা নির্বাচনে প্রায় ২৩ হাজার এজেন্টকে প্রশিক্ষণ দেওয়ার কথা রয়েছে।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.