কাতারি বিমান ঘাঁটিতে মার্কিন সামরিক উপস্থিতি বাড়ানোর চুক্তি

কাতারের সঙ্গে গোপনে একটি সামরিক চুক্তি করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এই চুক্তির মাধ্যমে কাতারের আল উদেইদ বিমান ঘাঁটিতে মার্কিন সামরিক বাহিনীর উপস্থিতি আরও ১০ বছর বাড়ানো হয়েছে। তবে এই চুক্তির বিষয়টি কোনো পক্ষই প্রকাশ করেনি।

গতকাল মঙ্গলবার (২ জানুয়ারি) মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের তিনজন কর্মকর্তা এবং চুক্তি সংশ্লিষ্ট আরেকজন কর্মকর্তার বরাত দিয়ে এসব তথ্য জানিয়েছে সিএনএন।

আল উদেইদ বিমান ঘাঁটি কাতারের রাজধানী দোহার দক্ষিণ-পশ্চিমের মরুভূমিতে অবস্থিত। এটি মধ্যপ্রাচ্যে যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে বড় সামরিক ঘাঁটি। এখানে ১০ হাজারের বেশি মার্কিন সেনা থাকতে পারেন।

মধ্যপ্রাচ্য ও আশপাশের অঞ্চলে দায়িত্বে রয়েছে মার্কিন সামরিক বাহিনীর সেন্ট্রাল কমান্ড। আর আফগানিস্তান, ইরান ও মধ্যপ্রাচ্যজুড়ে সেন্ট্রাল কমান্ডের অভিযানের প্রধান কেন্দ্র হিসেবে কাজ করে আল উদেইদ বিমান ঘাঁটি। এখানে যুক্তরাষ্ট্র ছাড়াও কাতার ও যুক্তরাজ্যের বিমানবাহিনীর সদস্যরা অবস্থান করেন।

 

গত মাসে মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন কাতার সফর করেন। সফরকালে তিনি আল উদেইদ সামরিক ঘাঁটি পরিদর্শন করেন। এ সময় এই সামরিক ঘাঁটিতে খরচ বাড়ানোর জন্য কাতারকে ধন্যবাদ জানান তিনি। তবে সফরকালে চুক্তির মেয়াদ বাড়ানো নিয়ে কিছু বলেননি তিনি। এমনকি মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন প্রশাসনও কিছু প্রকাশ করেনি।

 

তখন চুক্তির মেয়াদ বাড়ানোর ঘোষণা না দিলেও অস্টিন দুই দেশের দ্বিপক্ষীয় প্রতিরক্ষা সম্পর্ক সম্প্রসারণ ও শক্তিশালী করার জন্য আনুষ্ঠানিকভাবে পদক্ষেপ নেওয়ার কথা জানান।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.