লেবাননে ইসরায়েলি বিমান হামলায় হিজবুল্লাহ কমান্ডার নিহত

দক্ষিণ লেবাননে দখলদার ইসরায়েলির হামলায় ইরান সমর্থিত হিজবুল্লাহ গ্রুপের একজন শীর্ষ কমান্ডার নিহত হয়েছেন। একটি নিরাপত্তা সূত্রের বরাত দিয়ে সোমবার এএফপি এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে। এতে গাজায় চলমান সংঘাত আরও ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা বাড়ল।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ইসরায়েল-গাজা সীমান্ত সংঘাতের সবশেষ রক্তক্ষয়ী ঘটনা এটি। এই সংঘাতের ফলে গাজায় বেসামরিকদের জীবন মানের ক্ষতি ক্রমবর্ধমান। পরিস্থিতি চলতে থাকলে মধ্যপ্রাচ্যে আরও একটি যুদ্ধ বাধতে পারে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

৭ অক্টোবর দক্ষিণ ইসরায়েলে হামাসের হামলার পর গাজায় সর্বাত্মক যুদ্ধ এবং ইসরায়েল ও হিজবুল্লাহর মধ্যে লড়াই শুরু হওয়ার পর নিহতদের মধ্যে তিনিই সশস্ত্র গোষ্ঠীর সবচেয়ে সিনিয়র যোদ্ধা। গত সপ্তাহে ইসরায়েলি হামলায় বৈরুতে হামাসের সিনিয়র নেতা নিহত হওয়ার পর লেবাননের সঙ্গে উত্তেজনা ক্রমশ বাড়ছে।

এই অঞ্চলের সংঘাত ছড়িয়ে পড়া ঠেকাতে চলতি সপ্তাহে সফর করা শুরু করেছন মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন।

ইসরায়েল বলেছে, তারা উত্তর গাজায় বড় ধরনের অভিযান শেষ করেছে এবং এখন কেন্দ্রীয় অঞ্চল ও দক্ষিণের শহর খান ইউনিসের দিকে নজর দিচ্ছে। ইসরায়েলি কর্মকর্তারা বলেছেন, যুদ্ধ আরও অনেক মাস ধরে চলতে থাকবে কারণ স্বাধীনতাকামী সেনাবাহিনী হামাসকে ভেঙে দিতে চাইছে এবং ৭ অক্টোবরের হামলার সময় বন্দী করা অসংখ্য জিম্মিকে ফিরিয়ে দিতে চাইছে যা যুদ্ধের সূত্রপাত করেছিল।

ইসরায়েলি হামলায় ইতিমধ্যে ২৩ হাজার ফিলিস্তিনি বেসামরিক ও যোদ্ধা নিহত হয়েছে। ধ্বংসস্তূপে পরিণত হয়েছে গাজা উপত্যকা। বাস্তুচ্যুত হয়েছে অঞ্চলটির প্রায় ২৩ লাখ বাসিন্দার ৮৫ শতাংশ। অনাহারে দিন কাটাচ্ছে এক চতুর্থাংশ মানুষ।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.