ইয়েমেনে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের যৌথ হামলা

লোহিত সাগরে হুথিদের সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ডকে কেন্দ্র করে ইয়েমেনে যৌথ হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য। হামাসকে সমর্থন দিয়ে কয়েক মাস ধরে বাণিজ্যিক জাহাজে আক্রমণ করে আসছিল সশস্ত্র সংগঠনটি। এর জেরেই যৌথ অভিযান শুরু করেছে ইসরায়েলের দুই মিত্র। খবর রয়টার্স।

 

 

বেশ কিছুদিন ধরে সমুদ্রে হুথিদের বিরুদ্ধে অভিযান চালিয়ে আসছিল যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্য। এবার স্থলভাগে বিস্তৃত হয়েছে সে অভিযান।

গতকাল বৃহস্পতিবার (১১ জানুয়ারি) হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী লয়েড অস্টিন। হুথিদের ড্রোন, ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র, রাডার ও বিমান প্রতিরক্ষার লক্ষ্যবস্তুতে হামলা চালানো হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

এছাড়া জোর পদক্ষেপের কথা জানিয়ে হুথিদের হুঁশিয়ার করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

তিনি বলেছেন, এই হামলার মাধ্যমে আমরা স্পষ্ট বার্তা দিতে চাই। যুক্তরাষ্ট্র বা তার মিত্রদের ওপর কোনো ধরনের হামলা বা ওই অঞ্চলের বাণিজ্যিক রুটে জাহাজ চলাচলকে বাধাগ্রস্ত করা কখনই সমর্থনযোগ্য নয়।

এসব হামলায় লোহিত সাগরে বাণিজ্যিক জাহাজে হুথিদের হুমকি পরাস্ত হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন যুক্তরাজ্যের প্রতিরক্ষামন্ত্রী।

এদিকে যৌথ অভিযানের বিরুদ্ধে তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ জানিয়েছেন হুথির এক কর্মকর্তা। ইয়েমেনের রাজধানী সানা এবং এর আশপাশের অঞ্চল সাদা ও ধামার শহরে হামলাকে ‘মার্কিন জায়নিস্ট ও ব্রিটিশ আগ্রাসন’ বলে উল্লেখ করেন তিনি।

এর আগে গত বুধবার লোহিত সাগরে হুথি হামলা অবিলম্বে বন্ধের দাবি জানিয়ে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে একটি প্রস্তাব পাশ হয়। প্রস্তাবে জাতিসংঘ সদস্য রাষ্ট্রগুলোর জাহাজ রক্ষার অধিকারকে অনুমোদন দেয়া হয়।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.