বেসামরিক বিমান কর্তৃপক্ষকে রাজস্ব আয় বাড়ানোর নির্দেশ বিমান ও পর্যটন মন্ত্রীর

বিমানবন্দরে যাত্রীসেবার মান আরও বাড়ানোর পাশাপাশি রাজস্ব আয় বাড়াতে বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষকে (বেবিচক) নির্দেশনা দিয়েছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী মুহাম্মদ ফারুক খান।

আজ সোমবার (২২ জানুয়ারি) বেবিচক সদরদপ্তরে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে তিনি এ নির্দেশনা দেন। এসময় বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোকাম্মেল হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

বিমানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে এভিয়েশন শিল্পের বাজার ক্রমাগত বাড়ছে। এই বর্ধিত বাজারের সুবিধা নিতে হবে। বেবিচকের রাজস্ব আয় আরও বাড়ানোর চেষ্টা করতে হবে এবং তা নিশ্চিতে সবাইকে কাজ করতে হবে। ভবিষ্যতে যেন বেবিচক নিজেদের রাজস্ব আয় থেকেই তাদের সব উন্নয়ন কর্মকাণ্ড গ্রহণ ও সম্পন্ন করতে পারে, সেরকম সক্ষমতা অর্জনে মনোযোগ দিতে হবে।

তিনি বলেন, বিমানবন্দর ভিত্তিক সব সেবা ডিজিটাইজড করতে হবে, যেন মানুষ সহজে সেবা পায় এবং যাত্রীদুর্ভোগ কমে আসে। বিমানবন্দরগুলোর নিরাপত্তায় আন্তর্জাতিক মান ধরে রাখতে সব ধরনের ব্যবস্থা নিতে হবে। বিমানবন্দরের সব কাজ সুষ্ঠুভাবে সম্পাদনের জন্য ধারাবাহিক ও সময়োচিত মানবসম্পদের উন্নয়নেও জোর দেন তিনি।

পরে মন্ত্রী বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের সদরদপ্তর বলাকা ভবনে বিমানের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন। তিনি সেখানে সঠিক সময়ে বিমান ছাড়া, দ্রুততম সময়ে লাগেজ ডেলিভারি দেওয়া এবং ইনফ্লাইট যাত্রীসেবা বাড়ানোর জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে কর্মকর্তাদের নির্দেশনা দেন।

বিমানমন্ত্রী বলেন, বিমানকে যাত্রীদের আস্থার পরিবহনে পরিণত করতে সেবার মান বাড়ানোর পাশাপাশি যাত্রীদের সঙ্গে যোগাযোগ বাড়াতে হবে। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের লাভের ধারা অব্যাহত রাখার জন্য পরিকল্পিত ও ধারাবাহিক কার্যক্রম চালিয়ে যেতে হবে।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.