৪ মামলায় জামিন পেলেন বিএনপি

প্রধান বিচারপতির বাসায় হামলাসহ রমনা থানার চার মামলায় ৬ সপ্তাহের আগাম জামিন পেয়েছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান বরকত উল্লাহ বুলু।

আজ বৃহস্পতিবার (২২ ফেব্রুয়ারি) এ বিষয়ে চারটি পৃথক আবেদনের শুনানি করে বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কাজী ইবাদত হোসেনের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। এদিন আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন নেন তিনি।

উল্লেখ্য, গত বছরের ২৮ অক্টোবর বিএনপির ডাকা মহাসমাবেশ চলাকালীন প্রধান বিচারপতির বাসায় হামলার অভিযোগ ওঠে। এ মামলায় বরকত উল্লাহ বুলু এজাহারভুক্ত আসামী।

আজ আদালতে বুলুর পক্ষে শুনানি করেন সুপ্রিম কোর্ট বারের সাবেক সম্পাদক সিনিয়র আইনজীবী ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন। তাকে সহযোগিতা করেন অ্যাডভোকেট তারেক ভুঁইয়া ও  মো. মনির উদ্দিন। এসময় আদালতে উপন্থিত ছিলেন নোয়াখালির বেগমগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সভাপতি কামাক্ষ চন্দ্র দাশ, প্রচার সম্পাদক নুরুল আমিন মিলন।

পরে আদালত থেকে বেরিয়ে বরকত উল্লাহ বুলু বলেন, আগামী ৬ সপ্তাহের আগাম জামিন নিলাম। এ মামলাগুলো মিথ্যা। গত দুই মাস চেষ্টা করার পর আজকে জামিন পেলাম। বাংলাদেশে এই মিথ্যা মামলা চলছে। গত বছরের ২৮ অক্টোবরের ঘটনায় আমাদের এক লাখ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে। সমাবেশের পর প্রায় ২৫ থেকে ২৬ হাজার নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়। সিনিয়র সব নেতারাই কারাগারে। গ্রেফতারের আশঙ্কায় আমরা দলীয় কর্মসূচি পালন করছি কম কম। আল্লাহর কাছে শুকরিয়া মিথ্যা মামলায় জামিন পেলাম। গত ৭ জানুয়ারির নির্বাচন একটি ভূঁয়া নির্বাচন। দেশের মানুষের বিরুদ্ধে স্বাধীনতা সার্বভৌমত্বের বিরুদ্ধে নির্বাচন করা হয়েছে।

এর আগে, গত বছরের ২৮ অক্টোবর প্রধান বিচারপতির বাসভবনে হামলা, সরকারি কাজে বাধা, ককটেল বিস্ফোরণ ও ভাঙচুরের অভিযোগে ২৯ অক্টোবর রমনা মডেল থানায় পৃথক দুটি মামলা করে পুলিশ। এসব মামলায় ইতোমধ্যে বিএনপিপন্থী কয়েকজন শীর্ষ আইনজীবীসহ বেশ কয়েকজন নেতা জামিন পেয়েছেন।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.