ওমরাহ যাত্রীর প্রথম সাউদিয়া ফ্লাইট মদিনা যাচ্ছে আজ

hgবিলম্বে হলেও ওমরাহ যাত্রীর প্রথম সাউদিয়া এরাবিয়ান এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট (এস ভি-৮০৭) আজ বুধবার বেলা ২টায় মদিনার উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করবে। ঢাকাস্থ সউদী দূতাবাস গতকাল থেকে ওমরাহ যাত্রীদের ভিসা ইস্যু শুরু করেছে। আজ অন্যান্য ওমরাহ এজেন্সির যাত্রীদের ওমরাহ ভিসা ইস্যু হলে আগামী শুক্রবার থেকে আরো ওমরাহ যাত্রী সউদী আরবের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করবে।

গত ২৭ অক্টোবর থেকে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের মুসলমানগণ পবিত্র ওমরাহ পালনের জন্য সউদী আরবে যাওয়া শুরু করেছেন। গত ২৪ অক্টোবর সউদী আরবের প্রখ্যাত ওমরাহ কোম্পানি নাজাদ (-৪) বাংলাদেশের মুনা ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস গ্রুপের ওমরাহ এজেন্সি সিয়াম এভিয়েশন গতকাল পর্যন্ত ৭১টি মোফা হাতে পেয়েছে। ঢাকাস্থ সউদী দূতাবাস কর্তৃপক্ষ গতকালই প্রথম সিয়াম এভিয়েশনের ১৬জন ওমরাহযাত্রীর ভিসা ইস্যু করেছে। এসব ওমরাহযাত্রীর মধ্যে আজ প্রথম পর্যায়ে ১৫জন ওমরাহ পালনের উদ্দেশ্যে সাউদিয়ার ফ্লাইটযোগে মদিনায় যাচ্ছেন। ওই ওমরাহ এজেন্সির বাকি ৫৫জন ওমরাহযাত্রীর ভিসার জন্য পাসপোর্ট আজ সউদী দূতাবাসে জমা দেয়া হবে। এসব ওমরাহযাত্রীর মধ্যে ৪৭জন আগামী ১৮ নভেম্বর চট্টগ্রাম বিমানবন্দর থেকে বিমানের ফ্লাইট (বিজি-০৩৭) যোগে জেদ্দার উদ্দেশ্যে যাত্রা করবে। হাবের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও মুনা ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরসের স্বত্বাধিকারী মোহাম্মদ হেলাল এ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। বাংলাদেশী ওমরাহ যাত্রীদের ভিসা চালু হওয়ায় হাব নেতা মোহাম্মদ হেলাল সউদী সরকার ও রাষ্ট্রদূতকে আন্তরিক অভিনন্দন জানিয়েছেন।

ওমরাহ এজেন্সি সফুরা এয়ার সার্ভিসেস গত ১৩ নভেম্বর সউদীর আল মসলি ওমরাহ কোম্পানি থেকে পাঁচটি মোফা পেয়ে ভিসার জন্য গতকাল সউদী দূতাবাসে জমা দিয়েছে। ওমরাহ এজেন্সির স্বত্বাধিকারী ও হাবের সাবেক নেতা মোজাম্মেল হোসাইন কামাল জানান, এসব ওমরাহ যাত্রীর ভিসা আজ পাওয়া গেলে আগামী শুক্রবার তাদের সউদী আরবে পাঠানো হবে। ঢাকাস্থ সউদী দূতাবাস যথাসময়ে নতুন মোফার ভিসার জন্য পাসপোর্ট জমা না নেয়ায় বেশ কয়েকটি ওমরাহ এজেন্সির ইস্যুকৃত মোফার মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে। পুনরায় এসব বাতিলকৃত মোফার পরিবর্তে নতুন মোফা আনতে হয়েছে। এতে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সংশ্লিষ্ট ওমরাহ এজেন্সিগুলোকে।

ওমরাহ এজেন্সি এয়ার স্পিড প্রা: লিমিটেড (০১)-এর ১৩জন ওমরাহ যাত্রীর ভিসার জন্য তাদের পাসপোর্ট দূতাবাসে জমা হয়েছে। আজ এসব ওমরাহ ভিসা ইস্যুর কথা। ওমরাহ এজেন্সি চ্যালেঞ্চার ট্রাভেলস অ্যান্ড ট্যুরস লিমিটেডের স্বত্বাধিকারী ও হাবের প্রতিষ্ঠাতা সহ-সভাপতি সৈয়দ গোলাম সরওয়ার জানিয়েছেন, তাদের প্রায় ২০টি মোফা পাওয়া গেছে। গতকাল তিন জন ওমরাহযাত্রীর ভিসার জন্য পাসপোর্ট দূতাবাসে জমা দেয়া হয়েছে। এসব ওমরাহ যাত্রীদের আগামী রোববার সউদী আরবে পাঠানো কথা রয়েছে। ইউরো এয়ার ইন্টারন্যাশনাল ট্রাভেলসে চেয়ারম্যান মাওলানা মুহাম্মদ মাহমুদুর রহমান জানিয়েছেন, সউদী দূতাবস কর্তৃপক্ষ বিলম্বে ওমরাহ ভিসা ইস্যু কার্যক্রম শুরু করায় অনেক ওমরাহ এজেন্সি মোফা আনতে নিরুৎসাহিত হয়েছে। তিনি বলেন, ওমরাহ ভিসা ইস্যু শুরু হওয়ায় আমরা মোফা আনার প্রক্রিয়া শুরু করেছি।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের মার্চ মাস থেকে ১১ মাস সউদী আরবে মানব পাচারের কারণে বাংলাদেশ থেকে ওমরাহ যাত্রীর ভিসা বন্ধ ছিল। ওই সময়ে প্রকৃত ওমরাযাত্রীরা ওমরা করতে মক্কা-মদিনায় যাওয়ার সুযোগ থেকে বঞ্চিত হওয়ায় তাদের মাঝে চরম অসন্তোষ দেখা দিয়েছিল। এতে বিদেশে বাংলাদেশের ভাবমূর্তিও ক্ষুণœ হয়। এক শ্রেণির অসাধু ওমরাহ এজেন্সির মালিক ওমরার নামে সউদীতে চাকরি সন্ধ্যানকারীদের পাঠিয়ে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়। যে সব এজেন্সি ওমরার নামে মানবপাচারের জড়িত ছিল, তাদের তদন্ত করে শাস্তি প্রদান করা হয়। বেশকিছু এজেন্সির লাইসেন্স বাতিল করা হয়। পরবর্তীতে অভিযুক্ত ওমরাহ এজেন্সিগুলো রিভিউ করলে ধর্ম মন্ত্রণালয় গত ঈদুল আজহার ক’দিন আগে তাদের শাস্তি মওকুফ করে ওমরাহ কার্যক্রমে অংশ নেয়ার সুযোগ দেয়।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.