কার্ড জালিয়াতি করে মাসে অর্ধকোটি টাকা আয়

DNCC20170315181150এটিএম, ডেবিট ও ক্রেডিট কার্ড জালিয়াতি করে প্রতি মাসে ৫০ থেকে ৬০ লাখ টাকা আত্মসাৎ করা একটি প্রতারক চক্রের ১১ সদস্যকে আটক করেছে র‌্যাব সদস্যরা।

রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। আটকদের মধ্যে ডিএনসিসি’র ট্রেড লাইসেন্স বিভাগের কর্মকর্তা নূর আলমও রয়েছেন। ট্রেড লাইসেন্স কর্মকর্তা হওয়ায় তার সঙ্গে ব্যবসায়ী ও দোকন মালিকদের সখ্যতা তৈরি হয়। এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে পিওএস মেশিনে ক্লোন কার্ড ঘষে আত্মসাৎ করা হতো বিপুল অংকের এই অর্থ।

বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাবের লিগ্যাল ও মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান এমন তথ্য জানান।

তিনি বলেন, জালিয়াতি চক্রের সদস্যদের একজন বিদেশ থেকে হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে দীর্ঘদিন লেনদেন না হওয়া গ্রাহকদের অ্যাকাউন্ট ও কার্ডের তথ্য চুরি করে ক্লোন কার্ড তৈরি করতো। এরপর বিভিন্ন দোকানের সঙ্গে লিয়াজোঁ করে কার্ড ঘষে তারা টাকা সংগ্রহ করতো।

আটকরা হলেন- মো. জালাল হোসেন সুমন (২৭), মো. শাহ আজিজ সোহেল (৩৬), মো. রানা (২৪), মো. জহিরুল ইসলাম (৩৭), মো. লুৎফর রহমান সুজন (৪২), মো. পারভেজ (২৩), মো. ওয়াহেদ (২০), মো. আবদুল আলী (৪০), মো. জাহাঙ্গীর হোসেন (৪৫), মো. কামরুজ্জামান সুমন (৩০) এবং ডিএনসিসি কর্মকর্তা মো. নূরে আলম (৪৫)।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, জালিয়াতি চক্রের আইটি এক্সপার্ট মো. শাহ আজিজ সোহেল দীর্ঘদিন দুবাইতে কর্মরত ছিলেন। দুবাই থাকাকালে তার সঙ্গে এরিক লিমো নামের এক আমেরিকানের পরিচয় হয়। সোহেল তার কাছ থেকে আন্তর্জাতিক কার্ড জালিয়াতির বিষয়ে দীক্ষা নেয়। পরে দেশে ফিরে ডিএনসিসি’র ওই কর্মকর্তাকে সাথে নিয়ে কার্ড জালিয়াতি চক্র গঠন করেন।

কার্ড জালিয়াতি করে তারা প্রতি মাসে ৫০ থেকে ৬০ লাখ টাকা আত্মসাৎ করতেন। সোয়াপ মেশিনধারী (কার্ড পাঞ্চ করার মেশিন) অসাধু দোকান মালিক বা ব্যবসায়ীর সঙ্গে ২০-২৫ শতাংশ কমিশন গ্রহণের মাধ্যমে কার্ড গ্রহণ/ব্যবহারের সুযোগ পেত চক্রটি।

অভিযানে কার্ড জালিয়াতি চক্রের কাছ থেকে কার্ড তৈরির বিশেষ ধরনের প্রিন্টার, বিভিন্ন ব্যাংকের দুইশ ডেবিড কার্ড, বিভিন্ন ব্যাংকের এক হাজার এটিএম কার্ড, ছয়টি সোয়াপ মেশিন (কার্ড পাঞ্চ করার মেশিন) জব্দ করা হয়েছে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।

আটকদের বিরুদ্ধে তথ্যপ্রযুক্তি আইনে মামলা দায়ের করা হবে বলেও জানান র‌্যাবের লিগ্যাল ও মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.