মোবাইলের প্রিয় ছবি ও ভিডিওগুলো ডিলিট হলে ফেরত পেতে যা করতে হবে আপনাকে!

mobile-delate-ticব্যক্তি জীবনের অংশ এখন স্মার্টফোন। আর স্মার্টফোনের ক্যামেরা একটি গুরুত্বপূর্ণ অনুসঙ্গ হয়ে উঠেছে। কারণ যেকোনো জায়গায়, যেকোনো মুহুর্তগুলো এখন স্মৃতি হয়ে থাকছে স্মার্টফোনের ক্যামেরায়। কিন্তু মাঝে মাঝে ভুল হয়ে যায়। অনিচ্ছাকৃতভাবে মুছে যায় প্রিয় কোনো ছবি।

তাই অ্যান্ড্রয়েড ফোনে ডিলিট হয়ে যাওয়া ছবি বা ভিডিও উদ্ধারের কিছু কৌশল জেনে নিন।

অ্যান্ড্রয়েড ফোনের ছবি এবং ভিডিওগুলো কোথায় স্টোর করছেন তা আগে জেনে নিতে হবে। যদি, ছবি বা ভিডিওগুলি মেমরিকার্ডে স্টোর থাকে, তা হলে অসুবিধা নেই। এখান থেকে ছবি ডিলিট হয়ে গেলে অনলাইন থেকে একাধিক ‘রিকভার সফটওয়্যার’-এর সাহায্য নেওয়া যেতে পারে। ‘রেকুভা’ নামে একটি রিকভারিং সফটওয়্যার এজন্য বেশ সহায়ক।

অ্যান্ড্রয়েড ফোনের ইন্টারন্যাল মেমরি বা ফোন মেমরি থেকে ছবি অথবা ভিডিও ডিলিট হলে চিন্তার বিষয়। এক্ষেত্রে কিছুটা হলেও আশা জোগাতে পারে ‘ডিস্ক ডিগার অ্যাপ’।

তবে এই অ্যাপ ব্যবহার করার আগে সতর্কীকরণটা মনে রাখতে হবে। কারণ, ‘ডিস্ক ডিগার অ্যাপ’ রুটেড অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসের ক্ষেত্রেই কাজ করবে। কী করে অ্যান্ড্রয়েড ফোনকে রুট করতে হবে, তার জন্য অনলাইনে বিশেষ করে ইউটিউবে একাধিক টিউটোরিয়াল রয়েছে।

অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলে যখন কোনও ফাইল ডিলিট হয়, তখন সিস্টেমে শুধু তথ্যগুলো মুছে যায়। যতক্ষণ না পর্যন্ত ওই ফাইল স্পেসে অন্যকিছু ওভাররাইট হচ্ছে, ততক্ষণ পর্যন্ত তা পুনরুদ্ধার করার সম্ভাবনা থাকে।

তাই, ডিলিট হওয়া ফাইল উদ্ধার না হওয়া পর্যন্ত কোনও ধরনের সিস্টেম আপডেশন বা ফোন মেমরিতে ছবি সেভ, ডকুমেন্ট ফাইল সেভ করা যাবে না।

যা করতে হবে:

গুগল প্লে-স্টোর গেলে পাওয়া যাবে ‘ডিস্ক ডিগার’ অ্যাপ।

ডাউনলোড সম্পূর্ণ হলে ‘ডিস্ক ডিগার’ অ্যাপটি ওপেন করতে হবে এবং যে স্থান থেকে ফাইল ডিলিট হয়েছে সেটাকে চিহ্নিত করতে হবে।
এরপর ফাইল টাইপ সিলেক্ট করতে হবে, যেমন— জেপিজি, না পিএনজি না এমপি ফোর।

‘ওকে’ বাটনে ক্লিক করলে অ্যাপটি ডিলিট ফোটোর সন্ধানে স্ক্যান শুরু করবে।

স্ক্যান শেষ হলে, ‘ডিস্ক ডিগার’ ডিলিট ফাইলের তালিকা দেখাবে। এরপর সেভ বাটনে ক্লিক করতে হবে। কোথায় ফাইলগুলি সেভ করবেন, সেই জায়গাটা দেখিয়ে দিতে হবে।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.