কক্সবাজার বিমানবন্দরে গরু ছাগল ও কুকুরের উৎপাত!

Coxbazar-Airportএভিয়েশন নিউজ: কক্সবাজার বিমানবন্দরে গরু, ছাগল ও কুকুরের উৎপাত দেখা দিয়েছে। ফলে নিরাপত্তা ঝুঁকিতে রয়েছে বিমানবন্দরটি। প্রতিদিন এখানে তিনটি যাত্রীবাহী বিমান এবং পাঁচটি কার্গো বিমান উঠানামা করে থাকে। পশ্চিমের সীমানা প্রাচীর ভেঙে যাওয়ায় পশুগুলো ঢুকে পড়ছে সহজেই। গত পাঁচদিনে নিরাপত্তাকর্মীরা অন্তত ৫০ কুকুর নিধন করেছে। এছাড়া খোঁয়াড়ে দেওয়া হয়েছে অনেক গরু।

কক্সবাজার বিমানবন্দরের ম্যানেজার হাসান জহির বলেন, ‘বিমানবন্দরে অনুপ্রবেশকারী গবাদিপশু ও কুকুর আমাদের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে দিচ্ছে। বিমান উঠা-নামার সময় এলেই উৎকণ্ঠায় থাকি। বলা যায় না কখন কি হয়! বিমানবন্দর সংলগ্ন চারপাশের এলাকায় মাইকে ঘোষণা দেওয়া হয়েছে, কোনো গরু-ছাগল যেন বিমানবন্দরে না ঢোকে। যদি ঢোকে তাহলে গুলি করা হবে। এরকম ঘোষণায়ও কাজ হচ্ছে না।’ তিনি জানান, বিমানবন্দর সমপ্রসারণসহ আধুনিকীকরণ প্রকল্পের কাজ শুরু হবে শিগগিরই। তাই ভাঙা সীমানা দেয়াল এ মুহূর্তে মেরামত করা হচ্ছে না।

বিমানবন্দরের নিরাপত্তা কর্মকর্তা গাজী ওমর ফারুক গতকাল বুধবার বলেন, ‘বিমানবন্দরের পশ্চিম পাশে তিনটি স্থানে সীমানা দেয়াল ভেঙে পড়েছে। ভেঙে পড়া অংশ দিয়ে ঢুকে পড়ছে স্থানীয়দের গরু, ছাগল এবং কুকুর। এমনকি বিমানবন্দরের সীমানা দেয়াল সংলগ্ন এলাকার খাল দিয়ে জোয়ারের সময় সাগরের নোনা পানি ঢুকে পড়ে। নোনা পানির কারণে সীমানা দেয়াল বার বার ধসে পড়ছে। জোয়ার-ভাটার পানিতে দেয়ালের গোড়া একদিকে ভেঙে যাচ্ছে অন্যদিকে গর্তের সৃষ্টি হচ্ছে।’

নিরাপত্তা কর্মকর্তা জানান, নিরাপত্তার কাজে ৬৬ জন আনসার রয়েছেন। প্রতি শিফটে ১৬ জন করে আনসার বিমানবন্দরের নিরাপত্তা দিতে গিয়ে হিমসিম খাচ্ছেন। বিশেষ করে সকাল থেকে বিকেল অবধি বিমান উঠা-নামার সময় গবাদিপশুর অনুপ্রবেশ ঠেকাতে আনসাররা তৎপর থাকেন।’

নিরাপত্তাকর্মীরা জানান, সমপ্রতি বিমানবন্দরে ঢোকে পড়া ১১টি গরু ধরে খোঁয়াড়ে আটক রাখা হয়। কিন্তু মালিকরা এসব গরু নিতে এসেছেন পাঁচদিন পর।

আনসার সদস্য মোহাম্মদ দিদার বলেন, ‘সামুদ্রিক জোয়ার-ভাটার সময়ের হিসাব করে আমাদের ডিউটি দিতে হয় সবচেয়ে বেশি। কারণ জোয়ারের সময় পানির কারণে গবাদিপশু ঢোকতে পারে না। তবে ভাটার সময় গরু-ছাগল ঢোকে বেশি। গবাদি পশুগুলোকে একদিকে ধাওয়া দিলে অন্যদিকে ঢুকে পড়ে।’

কালের কণ্ঠের সৌজন্যে।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.