ফের ধস, রাস্তা বন্ধ

bরাজধানীর কারওয়ানবাজারে সুন্দরবন হোটেল সংলগ্ন নির্মাণাধীন এনবিএল টাওয়ারের পশ্চিম পাশে বড় ধরনের আরেকটি ধসের ঘটনা ঘটেছে। তবে কোনো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।

এ ঘটনার পর বীরউত্তম সি আর দত্ত রোড আবারও বন্ধ করে দিয়েছে পুরিশ।

রবিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এর পরপরই ঘটনাস্থলে আসেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন।

ঢাকা দক্ষিণ সিটির প্রধান প্রকৌশলী মো. হাবিবুর রহমান বলেন, “পশ্চিম পাশে (সুন্দরবন হোটেলের পেছন পাশ) আবারো নতুন করে ধস শুরু হয়েছে। প্রায় ৫০ থেকে ৬০ ফিট ধসে গেছে। ওইদিকে একটি গ্যারেজ থাকায় তেমন ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। তবে কয়েকটি অস্থায়ী ঘর ধসে পড়েছে।”

তিনি বলেন, “আগ থেকেই আমাদের ধারাণা ছিল, যে কোনো সময় ওই পাশটিও ধসে পড়তে পারে। তাই আশপাশের বসবাসকারীদের সরিয়ে দেওয়া হয়েছিল।”

হাবিবুর রহমান বলেন, “পশ্চিম পাশে নতুন করে ধস হলেও সুন্দরবন হোটেল ঝুঁকিমুক্ত।”

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে এবিএল টাওয়ারের পেছন দিকে (কাঁঠালবাগান ও হাতিরপুল) পাইলিংয়ের অংশ ধসে যায়। এতে নির্মাণাধীন ভবন লাগোয়া গাড়ির গ্যারেজটিও ধসে পড়ে। তবে গ্যারেজে কোনো গাড়ি কিংবা লোকজন ছিল না।

এর আগে ২৭ মে ভোরে সুন্দরবন হোটেল সংলগ্ন নির্মাণাধীন ভবনের পাইলিং ধসে পড়ে। এরপর সুন্দরবন হোটেলের একটি অংশ ধসে যায়। এ ঘটনায় পান্থপথসহ আশপাশের সংলগ্ন এলাকাকে ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.