বিশেষ বিমানে চীনফেরত সাতজন কুর্মিটোলা হাসপাতালে

বিশেষ বিমানে চীনফেরত সাতজন কুর্মিটোলা হাসপাতালে।

করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে বিমানের বিশেষ ফ্লাইটে চীন ফেরত ৩১৬ জন যাত্রীর মধ্যে সাতজনকে জ্বর থাকায় রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। এর আগে আজ করোনাভাইরাসের কারণে চীনের উহান নগরীতে আটকে পড়া ৩১৬ জন বাংলাদেশিকে নিয়ে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ফিরেছে বিমানের বিশেষ ‘রেসকিউ ফেরি ফ্লাইট’ বিজি-৭০০২।

আজ শনিবার বেলা ১১টা ৫৪ মিনিটে দেশে ফিরেছে বিমানের বিশেষ ফ্লাইটটি। এরপর আগত যাত্রীদের মধ্যে সাত জনকে জ্বর থাকায় কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়।

সাতজন বাদে অবশিষ্ট যাত্রীদের কোয়ারেন্টাইনে (সংক্রমণ প্রতিরোধে নিয়ন্ত্রণমূলক ব্যবস্থা) রাখার জন্য আশকোনা হজ ক্যাম্পে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সেখানে তাদের ১৪ দিন পর্যবেক্ষণে রাখা হবে। তবে যারা চীন থেকেই ১৪ দিনের হিসাবে পর্যবেক্ষণে ছিল, তাদের অবশিষ্ট দিনগুলোর জন্য পর্যবেক্ষণে রাখা হবে।

বিমানবন্দরের স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. মোহাম্মদ শাহরীয়ার সাজ্জাদ বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ইতিমধ্যেই তাদের রক্তের স্যাম্পল গ্রহণের প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

আগতদের মধ্যে ৩১৩ জন পূর্ণ বয়স্ক নারী-পুরুষ ও তিনজন শিশু বলে জানা গেছে।

এ বিষয়ে পরে আনুষ্ঠানিক ব্রিফিং হবে বলে জানানো হয়েছে।

দুপুর একটার দিকে বিমানবন্দর থেকে বিআরটিসির দুটি এসি বাস ও বিমানবন্দরের একটি অ্যাম্বুলেন্সে আগতদের হজ ক্যাম্পে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

উহানের তিয়ানহি ইন্টারন্যাশনাল বিমানবন্দর থেকে স্থানীয় সময় শনিবার ভোর পৌনে ৬টায় (বাংলাদেশ সময় সকাল পৌনে ৮টায়) তাদের নিয়ে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি বোয়িং ৭৭৭ উড়োজাহাজ ঢাকার উদ্দেশে উড়াল দেয়। উড়োজাহাজটিতে চারজন ডাক্তার, পাইলট ছাড়াও ১১ জন কেবিন ক্রু, চারজন ককপিট ক্রু ও দুজন প্রকৌশলী রয়েছেন বলে জানিয়েছে বিমান কর্তৃপক্ষ।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.