রাশিয়ার সীমান্তবর্তী গ্রামে ঢুকে গুলি চালিয়েছে ইউক্রেন: মস্কো

রাশিয়ার সীমান্তবর্তী গ্রামে ঢুকে ইউক্রেনীয় বাহিনী বেসামরিক লোকদের ওপর গুলি চালিয়েছে বলে দাবি করেছে মস্কো। এদিকে মস্কোর এ দাবি অস্বীকার করে এটিকে রাশিয়ার ‘ইচ্ছাকৃত উসকানি’ বলছে কিয়েভ।

গতকাল বৃহস্পতিবার এ দাবি করে মস্কো বলছে— ইউক্রেন সীমান্তঘেঁষে তাদের এলাকায় নিয়মিত গুলি ছোড়ছে ইউক্রেনীয় সেনারা।

আজও রাশিয়ার ব্রায়ানস্ক অঞ্চলে ঢুকে গুলি ছুড়েছে ইউক্রেনীয় বাহিনী। আন্তার্জাতিক সংবাদমাধ্যম বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

মস্কোর এমন দাবির পরপরই এ বিষয়ে কথা বলেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। তিনি বলেন, আজ আরও হামলা চালালো সন্ত্রাসীরা। সীমান্তে অনুপ্রবেশ করে সাধারণ মানুষের ওপর গুলি চালিয়েছে তারা।

ব্রায়ানস্ক অঞ্চলের গভর্নর আলেকজান্ডার বোগোমাজ বলেছেন, ইউক্রেন সীমান্তঘেঁষে তাদের একটি গ্রামে ঢুকে বেসামরিক গাড়িতে গুলি চালিয়ে দুজনকে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় ১০ বছর বয়সী একটি ছেলে আহত হয়েছে।

রাশিয়ার অভিযোগ দৃঢ়ভাবে অস্বীকার করে জেলেনস্কির উপদেষ্টা মাইখাইলো পোডোলিয়াক বলেন, সীমান্তে হামলা চালানোর বিষয়টি রাশিয়ার ইচ্ছাকৃত উসকানি। অন্য দেশের ওপর হামলা চালানো ন্যায়সঙ্গত বিষয়টি বোঝাতে রাশিয়া তার জনগণকে ভয় দেখাতে চায়।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.