কক্সবাজারে ২ হাজার টাকার হোটেল ভাড়া ৮ হাজার, রাস্তায় রাত পার করছেন পর্যটকরা

টানা তিনদিনের ছুটি উপলক্ষে পর্যটক গিজগিজ করছে পর্যটন নগরী কক্সবাজারে।
এই শহরে একসঙ্গে রাত্রিযাপন করতে পারেন মাত্র এক লাখ বিশ হাজার পর্যটক।
কিন্তু ছুটির প্রথমদিনই প্রায় দেড় লাখ ভ্রমণকারী এসেছেন শহরে।
পরেরদিন এই সংখ্যা আরও বেড়েছে।
এই সুযোগে হোটেল-মোটেলের ভাড়া চার থেকে পাঁচগুণ পর্যন্ত বাড়িয়ে দিয়েছে দালালরা।
অনেক পর্যটকই থাকার জায়গা না পেয়ে সৈকত বা রাস্তায় রাত পার করতে বাধ্য হয়েছেন।

সূত্র জানিয়েছে, বিপুলসংখ্যক পর্যটকের সমাগম ঘটবে এটা আঁচ করতে পেরে এক শ্রেণির দালাল আগে থেকে নিজেদের নামে হোটেল রুম বুকিং করে কৃত্রিম সংকটের সৃষ্টি করেছে।

তারাই অতিরিক্ত টাকা হাতিয়ে নেয়। এক হাজার টাকার রুম ৩ থেকে ৪ হাজার টাকা, ২ হাজার টাকার রুম ৭ থেকে ৮ হাজার টাকা, ৩ হাজার টাকার রুমের ভাড়া বেড়ে হয়েছে ৯ থেকে ১০ হাজার টাকা।

অনেক পর্যটক হোটেলে ঠাঁই না পেয়ে রাত্রিযাপন করেছেন যাত্রীবাহী বাস, সৈকতের কিটকট চেয়ারে (বিনোদন ছাতা), কলাতলীর হোটেল-মোটেল জোনের ফুটপাত এবং দোকানের বাইরের বারান্দায়।
অনেকে সৈকতের খোলা আকাশের নিচেও রাত কাটিয়েছেন।
কেউ কেউ স্থানীয়দের বাসা-বাড়িতে অবস্থান নিয়েও রাত্রীযাপন করেছে বলে জানা গেছে।
বিকল্প স্থানে থাকতে গিয়ে এসব পর্যটকদের মোটা টাকা গুনতে হয়েছে।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.