প্রসব যন্ত্রণার অজুহাত দিয়ে বিমানের জরুরি অবতরণ!

উত্তর আফ্রিকার দেশ মরক্কো থেকে তুরস্কের ইস্তাম্বুলের উদ্দেশে একটি বিমান যাত্রা করেছিল। মাঝপথে স্পেনের আকাশে থাকার সময় ওই বিমানের এক নারী যাত্রী প্রসব বেদনা শুরু হয়েছে বলে ভান করেন। পরে বিমানটি স্পেনের বার্সেলোনার এল প্রাত বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণ করে। অবতরণের সঙ্গে সঙ্গে বিমানটি থেকে অন্তত ৩০ অভিবাসী দৌড়ে বিমানবন্দর থেকে পালিয়ে যান।

সন্তান প্রসবের ভান করে অভিবাসীদের পালিয়ে যাওয়ার সুযোগ করে দেওয়া নারীকে গ্রেপ্তার করেছে বার্সেলোনা পুলিশ। আর নাটকীয় এই ঘটনা ঘটেছে বুধবার স্পেনের স্থানীয় সময় ভোর সাড়ে ৪টার দিকে।

 

ব্রিটিশ দৈনিক ডেইলি মেইল বলেছে, মরক্কোর কাসাব্লাঙ্কা শহর থেকে তুরস্কের ইস্তাম্বুল যাওয়ার পথে বিমানটি নির্ধারিত যাত্রাবিরতি করেছিল। ওই নারী প্রসবের ভান করায় তাকে বিমান থেকে নামিয়ে দূরে নিয়ে যাওয়া হচ্ছিল। সেই সময় বিমানের অন্য অন্তত ২৭ আরোহী দৌড়ে পালিয়ে যায়।

পরে ওই নারীসহ পালিয়ে যাওয়া অন্তত ১৪ জনকে গ্রেপ্তার করেছে বার্সেলোনা পুলিশ। ওই নারী দাবি করেছিলেন যে, তার প্রসব বেদনা শুরু হওয়ার পর পানি ভেঙে গেছে। যদিও বিমানবন্দরে চিকিৎসক পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর জানান, তিনি ওই নারীর গর্ভবতী হওয়ার কোনও আলামত পাননি।

ডেইলি মেইল বলেছে, গ্রেপ্তারকৃতদের মধ্যে পাঁচজন স্বেচ্ছায় বিমানে ফিরতে রাজি হয়েছেন। তুরস্কের পেগাসাস এয়ারলাইন্সের পিসি৬৫২ ফ্লাইটে এই নাটকীয় ঘটনা ঘটেছে।

 

এর আগে, গত বছরের নভেম্বরেও কাসাব্লাঙ্কা থেকে ইস্তাম্বুলগামী একটি বিমানে প্রায় একই ধরনের একটি ঘটনা ঘটেছিল। ওই সময় কাসাব্লাঙ্কা থেকে ইস্তাম্বুলগামী বিমানের মরক্কান এক যাত্রী ডায়াবেটিকের কারণে অসুস্থ হয়ে পড়ার ভান করেন। পরে বিমানটি মেজোরকা দ্বীপের পালমা বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণ করলে, সেই ফ্লাইট থেকেও ২০ জনের বেশি যাত্রী পালিয়ে যান।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.