দায়িত্ব থেকে সরানো হলো দেবযানীকে

Debjaniএভিয়েশন নিউজ: যাঁকে কেন্দ্র করে যুক্তরাষ্ট্র-ভারত সম্পর্কে খানিকটা তিক্ততার সৃষ্টি হয়েছিল, সেই কূটনীতিক দেবযানী খোবরাগাড়েকে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। এর ফলে তিনি ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের চাকরিতে থাকবেন ঠিকই, তবে তাঁর সুনির্দিষ্ট কোনো দায়িত্ব থাকবে না। সরকারি সূত্রের বরাত দিয়ে শনিবার এএফপির খবরে বলা হয়েছে, অনুমোদন ছাড়া গণমাধ্যমে কথা বলার কারণে দেবযানীকে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে।

ভারত থেকে নেওয়া গৃহকর্মীকে ন্যূনতম মজুরি না দেওয়া এবং তাঁর বেতনের বিষয়ে ভিসার আবেদনপত্রে মিথ্যা তথ্য দেওয়ার অভিযোগে গত বছরের ডিসেম্বরে নিউইয়র্কে কর্মরত ভারতের ডেপুটি কনসাল জেনারেল দেবযানীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তিনি তাঁর বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অস্বীকার করেন এবং অভিযোগ করেন, পুলিশ হেফাজতে বিবস্ত্র করে তাঁকে তল্লাশি করা হয়েছে। পরে তাঁকে ভারতে ফিরিয়ে আনা হয়। নিজেদের একজন কূটনীতিকের সঙ্গে এহেন আচরণের জের ধরে যুক্তরাষ্ট্র-ভারত সম্পর্কে টানাপোড়েন দেখা দেয়। একপর্যায়ে ভারতে নিযুক্ত মার্কিন কূটনীতিক ন্যান্সি পাওয়েল পদত্যাগ করতে বাধ্য হন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা জানান, অনুমোদন ছাড়া দেবযানী গণমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দিয়েছেন এবং তাঁর সন্তানেরা যে মার্কিন পাসপোর্টধারী, তা গোপন করেছেন। এ কারণে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বর্তমান দায়িত্ব থেকে তাঁকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। তাঁকে এখন বিভাগীয় তদন্তের মুখোমুখি হতে হবে।

দুই সন্তানের জননী দেবযানী ভারতের বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল এনডিটিভিতে নিউইয়র্কে তাঁর গ্রেপ্তার ও দেহ তল্লাশি করার বিষয়ে কথা বলেন। এর সপ্তাহ খানেক পর তাঁর বিরুদ্ধে এ ব্যবস্থা নেওয়া হলো। ওই অনুষ্ঠানে তিনি বলেছিলেন, তাঁর সন্তানেরা যুক্তরাষ্ট্রে জন্মগ্রহণ করেছে। সে কারণে তারা মার্কিন নাগরিক হিসেবে বিবেচিত হয়।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.