বিশেষ ফ্লাইটে নিষেধাজ্ঞার মধ্যে দেশে ফিরলে মানতে হবে যেসব নিয়ম

সিভিল এভিয়েশন অথরিটি অব বাংলাদেশ (সিএএবি) আগামী ১৪ এপ্রিল থেকে পরবর্তী এক সপ্তাহ পর্যন্ত ঢাকায় আসা-যাওয়ার জন্য নির্ধারিত প্রায় ৫০০ আন্তর্জাতিক ফ্লাইট স্থগিত করেছে ।

গতকাল রোববার সিভিল অ্যাভিয়েশন অথরিটি অব বাংলাদেশ চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মোহাম্মদ মফিদুর রহমান বিষয়টি জানান।

এদিকে বাংলাদেশের বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক) ১৩ এপ্রিল মধ্যরাত থেকে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট উঠানামা সাতদিনের জন্য বন্ধের নির্দেশনা দিয়েছে। তবে গতবারের মতো বাংলাদেশিদের দেশে ফেরাতে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় ফ্লাইট চলাচলের অনুমতি দেওয়া হতে পারে। সেক্ষেত্রে তাদের নতুন নিয়ম মানতে হবে।

বেবিচকের দেওয়া এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ১৩ এপ্রিল দিবাগত রাত ১২টা ১ মিনিট থেকে ২০ এপ্রিল রাত ১১টা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত বাংলাদেশ থেকে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট উঠা-নামা বন্ধ থাকবে। তবে ত্রাণসামগ্রী, কার্গো, টেকনিক্যাল ল্যান্ডিং (প্লেনের তেল নেওয়ার জন্য অবতরণ), বিশেষ ব্যবস্থাপনায় পরিচালিত ফ্লাইট ও এয়ার অ্যাম্বুলেন্স ইত্যাদি চলাচল করতে পারবে।

বিমানবন্দর ব্যবহার করা এসব যাত্রীকে বাধ্যতামূলকভাবে যাত্রা শুরুর ৭২ ঘণ্টা আগে করোনা নেগেটিভ সার্টিফিকেট নিয়ে প্লেনে চড়তে হবে। এ সময়ের মধ্যে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় পরিচালিত চার্টার্ড ফ্লাইটে আগতদের সরকার নির্ধারিত হোটেল গুলোতে নিজ খরচে ১৪ দিন বাধ্যতা মূলক ভাবে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে।

দেশে গত ৫ এপ্রিল থেকে সরকার ঘোষিত কঠোর নিষেধাজ্ঞার মধ্যে অভ্যন্তরীণ রুটের ফ্লাইট চলাচল বন্ধ রয়েছে। এ কারণে ৫ এপ্রিল থেকে দেশে অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট চলাচল বন্ধ রয়েছে।

আরও খবর
Loading...