বেসামরিক নাগরিকদের নির্বচারে হ’ত্যা করছে তালেবান

আফগানিস্তানের পাঞ্জশিরে অন্তত ২০ জন বেসামরিক ব্যক্তিকে হত্যা করেছে তালেবান।
এই উপত্যকায় বিরোধীদের সঙ্গে লড়ায়ের মধ্যে দিয়ে নিজেদের শক্ত ঘাঁটি গড়ে তোলে তারা।

পাঞ্জশিরে যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ করে দেয়ায় সেখানকার সংবাদ জানা কঠিন হয়ে পড়লেও বেশ কিছু তথ্যপ্রমাণ বিবিসির খবরে উঠে এসেছে।
সেখানে দেখা যায়, প্রতিশোধ না নেওয়ার অঙ্গীকার সত্ত্বেও তালেবান হত্যাকাণ্ড চালাচ্ছে।

একটি ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, পাঞ্জশিরের একটি কর্দমাক্ত সড়কের পাশে সামরিক পোশাক পরা একজন ব্যক্তিকে তালেবান যোদ্ধারা ঘিরে রেখেছে।
এরপর বন্দুকের গুলির শব্দ শোনা যায় এবং সেই ব্যক্তিকে সঙ্গে সঙ্গে মাটিতে লুটিয়ে পড়তে দেখা যায়।
তবে এটা স্পষ্ট নয় যে, ওই ব্যক্তি কোনো সেনাসদস্য কিনা।
ওই অঞ্চলে সামরিক পোশাক পরা খুব সাধারণ একটি ঘটনা।
ভিডিও করার সময় পাশে দাঁড়ানো একজন দাবি করেন, ওই ব্যক্তি একজন বেসামরিক নাগরিক।

বিবিসি খবরে বলা হয়েছে, পাঞ্জশিরে অন্তত এরকম ২০ জনকে হত্যার ঘটনা ঘটেছে।
তাদের একজন দোকান মালিক ও দুই সন্তানের জনক আবদুল সামি।
স্থানীয় সূত্রগুলো জানায়, তালেবান যখন তার দিকে যাচ্ছিল, তখন ওই ব্যক্তি পালিয়ে যাননি। তিনি বলেন, আমি সামান্য একজন দরিদ্র দোকান মালিক, যুদ্ধের সঙ্গে আমার কোন সম্পর্ক নেই।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.