সৌদি যুবরাজ সালমানের স্বপ্নের নগরী নিওম

লোহিত সাগরের ধারে ১২টি ছোট ছোট শহর নিয়ে গড়ে তোলা হচ্ছে নিওম নগরী। এর পার্বত্য ও উপত্যকা এলাকায় থাকবে আরও কয়েকটি শহর।
নাগরিক-পর্যটকদের সেবা দিতে থাকবে রোবট।
অত্যাধুনিক নিওম নগরীতে দেশি-বিদেশি বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতে নানা পরিকল্পনা সাজিয়েছেন সৌদি যুবরাজ সালমান।

সৌদির উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় তাবুক প্রদেশে নিওম নামের এক হাই-টেক মেগাসিটি নির্মাণ করছেন যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান (এমবিএস)।
এই প্রকল্পের উত্তরে লোহিত সাগর, পূর্বে মিসর এবং দক্ষিণে ইসরায়েল ও জর্ডান। সাড়ে ২৬ হাজার বর্গকিলোমিটারের নিওম শহর নির্মাণে ব্যয় ধরা হয়েছে ৫০০ বিলিয়ন ডলার।
শুধু তাই নয়, লোহিত সাগরের ওপর ৪৬০ কিলোমিটার পর্যন্ত বিস্তৃত থাকবে এই শহর।
২০২৫ সালের মধ্যে নিওম শহর নির্মাণের প্রথম ধাপ শেষ করার লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে তেলসমৃদ্ধ দেশ সৌদি।
এ ছাড়া পুরো প্রকল্প এলাকায় বিদ্যুৎ সরবরাহে নবায়নযোগ্য জ্বালানি ব্যবহারেরও পরিকল্পনা করছে দেশটি।
তেল রপ্তানির ওপর নির্ভরতা কমাতে এবং তেলের মজুদ শেষ হওয়ার আগেই দেশের অর্থনীতি সচল রাখার লক্ষ্যে মেগাসিটি নির্মাণের কথা ভাবেন যুবরাজ সালমান।
স্বপ্নের এই শহর একদিন দেশে বিলিয়ন ডলারের বিনিয়োগ আনবে বলে আশাবাদী তিনি।

নিওম শব্দ গ্রিক ও আরবি থেকে নেওয়া হয়েছে, যার অর্থ নতুন ভবিষ্যৎ।
বিদেশি বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতে ৩৫ বছর বয়সী যুবরাজ সালমানের এখন পর্যন্ত এটিই সবচেয়ে উচ্চাভিলাষী প্রকল্প।
সৌদি আরবের সাম্প্রতিক সাংস্কৃতিক ও অর্থনৈতিক পরিবর্তনের ধারাবাহিকতায় সাহসী পদক্ষেপ হিসেবে দেখা হচ্ছে এই নিওম প্রকল্পকে।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.