মধ্য আকাশে পড়া বরফের টুকরোয় বিমানের উইন্ডস্ক্রিন ভেঙে গেছে

মধ্য আকাশে পড়া বরফের টুকরোয় বিমানের উইন্ডস্ক্রিন মারাত্বকভাবে ভেঙে গেছে। বিমানটি অবতরণেল পর দেখা গেছে বরফের আঘাতে উইন্ডস্ক্রিন এবং বিমানের উপরীভাগের অনেক জায়গা ডেবে গেছে। গ্লাসেও হালকা ফাটল দেখা দিয়েছে। বিশেষজ্ঞরা বলেছেন, বিমান নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান বোয়িংয়ের উন্নতমানের যন্ত্রপাতি দিয়ে বিমানটি তৈরী হয়েছিল বলে রক্ষা। যদি বিমানটি নির্মাণে কোন ধরনের অবহেলা থাকতো তাহলে এই ঘটনায় বড় ধরনের বিপর্যয় হতো।  ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের বোরিং ৭৭৭ বিমানটি সে সময় মাটি থেকে এক হাজার ফুট উঁচুতে উড়ছিল বলে ব্রিটিশ গণমাধ্যম ডেইলি মেইল এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে।

ওই বিমানটির উপর দিয়ে উড়ে যাওয়া আরেকটি বিমান থেকে বরফের চাঁই ফেলা হয় বলে ডেইলি মেইল জানিয়েছে।

যাত্রীবাহী বিমানটি লন্ডনের গ্যাটউইক বিমানবন্দর থেকে মধ্য আমেরিকার কোস্টারিকায় যাচ্ছিল। বরফের চাঁই পড়ে ক্ষতিগ্রস্ত উইন্ডস্ক্রিন নিয়েই পাইলট ক্যালিফোর্নিয়ায় সান জোসে পৌঁছান। সেখানে ক্ষতিগ্রস্ত উইন্ডস্ক্রিন মেরামত করা হয়।

তবে এই কারণে বিমানটির প্রায় দুইশ জনের মতো যাত্রী, যারা বড়দিনের প্রাক্কালে ফিরছিলেন তারা সময়মতো পৌঁছাতে পারেনি বলে ডেইলি মেইল জানিয়েছে। এই বিড়াম্বনার কারণে বিমানটি নির্ধারিত সময়ের চেয়ে ৫০ ঘণ্টা দেরি হয়েছে বলে যাত্রীরা জানিয়েছেন।

ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের মুখপাত্র ক্ষতিগ্রস্ত উইন্ডস্ক্রিনের কারণে বিলম্ব হওয়ায় যাত্রীদের কাছে ‘আন্তরিক ক্ষমা প্রার্থনা’ করেছেন।

ওই মখুপাত্র ইন্ডিপেন্ডেন্টকে জানিয়েছেন, পুরোপুরি নিরাপত্তা নিশ্চিত না হওয়া পর্যন্ত তারা কোনো বিমান চালনা করেন না। আর এই ক্ষেত্রে বিমানটি নিরাপদ কী না সেই বিষয়টি প্রকৌশলী খোলাসা করতে পারছিলেন না। তাই এই অনাকাঙ্ক্ষিত বিলম্ব।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.