বিমানবন্দরে র‌্যাপিড পিসিআর টেস্ট স্থাপনের জন্য জায়গা নির্ধারণ করা হয়েছে

বিমানবন্দরে র‌্যাপিড পিসিআর টেস্ট স্থাপনের জন্য জায়গা নির্ধারণ করা হয়েছে ।  র‌্যাপিড পিসিআর টেস্ট মেশিন না থাকায় বিপাকে পড়েছেন আরব আমিরাতগামী যাত্রীরা। কারণ দেশটি নির্দেশনা দিয়েছে বিমানবন্দরে র‌্যাপিড পিসিআর টেস্টের ব্যবস্থা না থাকলে আরব আমিরাতে প্রবেশ করতে পারবে না বাংলাদেশসহ পাঁচ দেশের নাগরিকরা।

আমিরাত এয়ারলাইন্স জানিয়েছে, বাংলাদেশ ছাড়া এই তালিকায় আরও আছে নাইজেরিয়া, ভিয়েতনাম, জাম্বিয়া এবং ইন্দোনেশিয়া। এসব দেশের যাত্রীদের নিজ বিমানবন্দরে র‌্যাপিড পিসিআর টেস্টের ব্যবস্থা না থাকায় বর্তমানে আরব আমিরাত ভ্রমণ সম্ভব নয়। দুবাইভিত্তিক এয়ারলাইন্সটির সর্বশেষ ট্রাভেল আপডেটে এসব তথ্য জানানো হয়েছে। আগে নিষেধাজ্ঞার আওতায় থাকা কয়েকটি দেশের নাগরিকদের এই সপ্তাহে ভ্রমণ ভিসা, এন্ট্রি পারমিট দেওয়া শুরু করেছে সংযুক্ত আরব আমিরাত (ইউএই)।

এয়ারলাইন্সটির ওই নির্দেশনায় আরও বলা হয়েছে, আমিরাতের নির্দেশনা অনুযায়ী এসব দেশ কোভিড-১৯ টেস্টের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করলে তাদের নাগরিকেরাও দুবাই ভ্রমণের সুযোগ পাবে।

দুবাইয়ের ট্রাভেল এজেন্সি স্মার্ট ট্রাভেলস-এর অপারেশন ম্যানেজার মালিকা বেডেকার খালিজ টাইমসকে জানিয়েছেন, বাংলাদেশ থেকে ভ্রমণ ইচ্ছুকদের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। তবে তিনি জানান, ভ্রমণকারী এবং পর্যটন ভিসাধারীদের ভ্রমণ প্রক্রিয়া কেমন হবে তা নির্ধারণ করা হয়নি। এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ একবার এসব নিয়ম স্পষ্ট করে জানালে বিমান ভাড়া বাড়বে বলেও জানান তিনি।

দেশের তিনটি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরীক্ষায় র‌্যাপিড পিসিআর মেশিন না থাকায় প্রায় ২০ হাজার আমিরাত প্রবাসী বাংলাদেশি দেশটিতে যেতে পারছেন না। বেশ কিছুদিন ধরেই এই দাবিতে আন্দোলন করছে প্রবাসীরা।

বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে র‌্যাপিড পিসিআর মেশিন স্থাপনের দাবি জানান সংযুক্ত আরব আমিরাত প্রবাসী পরিষদ চট্টগ্রাম বিভাগ।

সংবাদ সম্মেলনে পরিষদের চট্টগ্রাম বিভাগের প্রধান সমন্বয়ক ইয়াছিন চৌধুরী বলেন, আরব আমিরাত কর্তৃপক্ষ ঘোষণা করেছে বাংলাদেশসহ অন্যান্য দেশে আটকে পড়া প্রবাসীরা নিজ নিজ কর্মস্থলে ফিরতে পারবে। কিন্তু পিসিআর পরীক্ষার শর্তের জন্য যাওয়া কঠিন হয়ে পড়েছে।

তিনি আরও বলেন, আরব আমিরাত সরকারের নিয়মানুযায়ী যেখান থেকে যাত্রীরা বিমানে ফ্লাই করবেন, তার ৬ ঘণ্টা আগে অবশ্যই র‌্যাপিড পিসিআর টেস্ট করিয়ে নেগেটিভ সনদ নিয়ে সেখানে যেতে হবে। কিন্তু আমাদের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলো কোনও দৃশ্যমান পদক্ষেপ নিতে পারেনি। ১৭ দিন ধরে চট্টগ্রাম, ঢাকা, সিলেটে আমরা কর্মসূচি পালন করেছি।

কবে নাগাদ বিমানবন্দরে র‍্যাপিড আরটি পিসি আর মেশিন বসানো হতে পারে জানতে চাইলে স্বাস্থ্য অধিদফতরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক ( প্রশাসন) অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা  বলেন, বিমানবন্দরে সাইট সিলেকশন হয়ে গেছে, এখন আর্কিটেকচারাল স্ট্রাকচার বানাতে হবে। সে কাজও চলছে। আর মেশিন আমাদের দেশে নেই। সে মেশিন কোথায় পাওয়া যায়, কিভাবে আনা যায় সে বিষয়গুলো দেখা হচ্ছে।

অধ্যাপক নাসিমা সুলতানা বলেন, ওখানে অনেক স্পেস থাকতে হবে, একসঙ্গে অনেক মানুষের বিষয় রয়েছে। সিটিং এরেঞ্জমেন্ট, ওয়েটিং এরেঞ্জমেন্টসহ অনেক বিষয় জড়িত।

তাহলে কবে নাগাদ সব কাজ শেষ হতে পারে প্রশ্নে তিনি বলেন, নির্দিষ্ট করে সময় বলা যাচ্ছে না। কারণ সব হয়ে গেলেও এখানে মেশিন আনার বিষয় রয়েছে, সেটাও অনেক গুরুত্বপূর্ণ।

আরও খবর
1 Comment
  1. Mohammad Idris says

    Please we request soon start rapid test our dhaka Airport. A lot of people stay home country for rapid test and billion billion remittance losses government. A lot people after few days expire visa. Biig problem family financial. A lot people job less from dubai. As soon as possible start rapid test system for any country travel..

আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.