জাপান-ভারতের প্রথম যৌথ যুদ্ধবিমান মহড়া শুরু

টোকিওর কাছে গত সোমবার যুদ্ধবিমানের প্রথম যৌথ মহড়া শুরু করেছে জাপান ও ভারত। চীনের ক্রমবর্ধমান সামরিক শক্তির দিকে দৃষ্টি রেখে এই দুটি দেশ তাদের প্রতিরক্ষা এবং নিরাপত্তা সম্পর্কিত সম্পর্ক আধুনিকায়ন করেছে। এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

জাপানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলেছে, এই মহড়া চলবে ১১ দিন। এতে জাপানের আটটি যুদ্ধবিমান অংশ নিচ্ছে। অন্যদিকে ভারত পাঠাচ্ছে চারটি যুদ্ধবিমান, দুটি পরিবহন বিমান এবং আকাশপথে একটি রিফুয়েলিং ট্যাংকার। টোকিওর উত্তর-পূর্বদিকে ইবারাকির কাছে হায়াকুরি বিমান ঘাঁটিতে এই মহড়ায় অংশ নিচ্ছেন ভারতীয় বিমান বাহিনীর প্রায় ১৫০ জন সদস্য।

২০১৯ সালে জাপান এবং ভারতীয় প্রতিরক্ষা ও পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের মধ্যে আলোচনা হয়। ওই আলোচনার সময় দুই দেশই এই মহড়ার বিষয়ে একমত হয়। কিন্তু এরপরই করোনা ভাইরাস মহামারি পরিস্থিতিকে পাল্টে দেয়। ফলে মহড়া বিলম্বিত হয়।

উল্লেখ্য, অস্ট্রেলিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে জাপান ও ভারত ‘কোয়াড’ জোটের অংশ।

এটি একটি আঞ্চলিক শক্তির জোট। চীনের ক্রমবর্ধমান সামরিক ও অর্থনৈতিক প্রভাবের কারণে গঠন করা হয়েছে এই জোট। সম্প্রতি একটি যৌথ সামরিক মহড়া করেছে টোকিও। ওদিকে ২০২৭ সাল নাগাদ সামরিক ব্যয় দ্বিগুণ করে জিডিপির শতকরা দুই ভাগ প্রতিরক্ষা খাতে খরচ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা।

ওদিকে গত সপ্তাহে বৃটেনের সঙ্গে নতুন একটি প্রতিরক্ষা চুক্তি স্বাক্ষর করেছে জাপান। এর আওতায় তারা আকাশপথে ওয়াশিংটনের সঙ্গে পারস্পরিক প্রতিরক্ষা চুক্তি বিস্তৃত করতে একমত হয়েছে।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.