বিমানবন্দরের ভিতরে স্যাটেলাইট ফোন–সহ গ্রেফতার মার্কিন নাগরিক

ভারতের বিমানবন্দরের ভিতরে স্যাটেলাইট ফোন নিয়ে যাওয়ার অভিযোগে বাগডোগরা বিমানবন্দর থেকে গতকাল গ্রেপ্তার হন এক মার্কিন নাগরিক।ধৃতের নাম থোমাস ইসরো সেইজ (৪৫)।তিনি আমেরিকার বাসিন্দা।

পুলিস সূত্রে জানা গিয়েছে,এদিন আমেরিকার তিন নাগরিক দিল্লিগামী বিমান ধরতে বাগডোগরা বিমানবন্দরে আসেন।তবে বিমানবন্দরে সিআইএসএফ লাগেজ পরীক্ষা করলে তাদের মধ্যে একজনের কাছ থেকে চীনা সংস্থার ইরিডিয়াম নামক একটি স্যাটেলাইট ফোন উদ্ধার হয়। বিমানবন্দরের নিরাপত্তারক্ষীরা বৈধ কাগজপত্র চাইলে তা দেখাতে না পারায়,তাদের আটক করে বাগডোগরা পুলিসের হাতে তুলে দেওয়া হয়। পুলিস সিআইএসএফের অভিযোগের ভিত্তিতে ঘটনার তদন্ত শুরু করে। পরে এ ঘটনায় একজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিস।

সেনাবাহিনী সূত্রে জানা গেছে আমেরিকার সংস্থা শিল্ড এ আই এবং ভারতের জেএস ডব্লিউ নামে একটি সংস্থা যৌথভাবে ভারতীয় সেনাবাহিনীর জন্য ড্রোন প্রশিক্ষণের কাজ করছিলেন। বিশেষ করে সীমান্ত এলাকায় ড্রোনের সাহায্যে কিভাবে উন্নত মানের নজরদারি চালানো যায় সে ব্যাপারে প্রশিক্ষণ দেওয়ার জন্য ওই মার্কিন নাগরিক ১২ই জানুয়ারি ভারতে এসেছিলেন। ছিলেন উত্তর সিকিমের লাচেন এলাকায়।

শুক্রবার প্রশিক্ষণ শেষে আমেরিকা ফিরে যাওয়ার জন্য দিল্লির বিমান ধরতে বাগডোগরা বিমানবন্দরে আসেন তিনি। সেখানেই নিরাপত্তার কাজে থাকা সি আই এস এফ জওয়ানদের স্ক্যানারে ধরা পড়ে তার ব্যাগের মধ্যে ভারতে নিষিদ্ধ স্যাটেলাইট ফোন রয়েছে। এই ফোনের সাহায্যে উপগ্রহ মারফত দূরবর্তী এবং প্রত্যন্ত এলাকার সাথে যোগাযোগ স্থাপন করা যায়।

সাধারণ মানুষের জন্য ভারতে এই ধরনের ফোনের ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।তা তিনি জানতেন না বলে তদন্তকারীদের কাছে স্বীকার করেন।তার পাসপোর্ট ভিসা বাজেয়াপ্ত করা হয়। পরে সেনাবাহিনী গোয়েন্দা বিভাগ প্রশিক্ষণের বিষয়টি স্বীকার করেন। তবে সেটেলাইট ফোন সম্বন্ধে তাদের কাছে কোন রকম খবর ছিল না বলে জানা গেছে।

শনিবার ওই মার্কিন নাগরিককে বাগডোগরা থানা ভারতীয় দণ্ডবিধির ইন্ডিয়ান ওয়ারলেস এন্ড টেলিগ্রাফ একটি মামলা রুজু করে আদালতে পাঠায়।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.