মাঝ আকাশে বিমানের ড্রিমলাইনারের উইন্ডশিল্ডে ফাটল

সৌদি আরবের পথে রওনা হওয়ার পর উইন্ডশিল্ডে ফাটল দেখা দেওয়ায় ২ ঘণ্টা উড়াল দেওয়ার পর রাজধানীর হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ফিরে এসেছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের একটি ফ্লাইট।

গতকাল শনিবার বিকেল পৌণে ৪টায় বিমানের বোয়িং ৭৮৭ মডেলের উড়োজাহাজটি দাম্মামের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। ফ্লাইটটির ২৮৫ যাত্রী ও ১২ জন ত্রুর সবাই অক্ষত আছেন।

জানা যায়, উড়োজাহাজটি মাঝ আকাশে থাকা অবস্থায় পাইলট এটির উইন্ডশিল্ডে ফাটল দেখতে পান। ফ্লাইটটি এ সময় ভারতের আকাশসীমা অতিক্রম করছিল। এ অবস্থায় কোনো ঝুঁকি না নিয়ে ক্যাপ্টেন ঢাকায় ফিরে আসার সিদ্ধান্ত নেন।

বিমানের জনসংযোগ বিভাগের মহাব্যবস্থাপক তাহেরা খন্দকার বলেন, ‘উড়োজাহাটি শনিবার বিকেল পৌণে ৪টার সিডিউলে দাম্মামের উদ্দেশে ছেড়ে যায়। দুই ঘণ্টা ফ্লাই করার পরে ক্যাপ্টেন উইন্ডশিল্ডে ফাটল দেখেন। পরে এটাকে নিয়ে উনি ফিরে আসেন। ফ্লাইটটি দাম্মাম যায়নি। ওইদিন রাত ৮টায় এটা ব্যাক করে।’

তাহেরা বলেন, ‘ফ্লাইটির ২৮৫ যাত্রীকে রাতে হোটেল রাখা হয়। পরে রোববার সকাল ১১টায় আরেকটি ফ্লাইটে তাদের দাম্মাম পাঠানো হয়েছে।’

ক্ষতিগ্রস্থ উড়োজাহাজটি শাহজালালে বিমানের হ্যাংগারে রেখে মেরামত করা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

এর আগে ২০২২ সালের ফেব্রুয়ারিতে বিমানের বোয়িং ৭৩৭ মডেলের একটি উড়োজাহাজের উইন্ডশিল্ড ভেঙ্গে গেলে মালয়েশিয়ায় গ্রাউন্ডেড করা হয়। একই বছরের আগস্টে দোহার উদ্দেশে ছেড়ে যাওয়া আরেকটি বোয়িং ড্রিমলাইনার মাঝ আকাশে একই সমস্যার মুখোমুখি হয়। পরে সেটিকে ভারতের আকাশসীমা থেকে ঢাকায় ফিরিয়ে আনা হয়।

আকাশে থাকা অবস্থায় উড়োজাহাজের উইন্ডশিল্ড ভেঙে গেলে ফ্লাইটের ভেতরে চাপ কমে গিয়ে এটিকে ভারসাম্যহীন করে তুলতে পারে। এতে দূর্ঘটনার ঝুঁকি বেড়ে যায়।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.