আরাভ খানকে আমি চিনি না: সাবেক আইজিপি বেনজীর

দুবাইয়ের আলোচিত স্বর্ণ ব্যবসায়ী আরাভ খানকে নিয়ে চলছে নানা গুঞ্জন। কীভাবে আরাভ ঢাকায় পুলিশ হত্যা করে দেশের বাইরে গেল, কীভাবে ভারতের নাগরিকত্ব নিয়ে দুবাই গেল, এত টাকার উৎস কী—এই নিয়ে যখন কানাঘুষা চলছে, তখনই আরাভকে চিনেন না দাবি করে ফেসবুকে পোস্ট দিয়েছেন সাবেক পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) বেনজীর আহমেদ।

আজ শনিবার দুপুর সাড়ে ৩টার দিকে তার ভেরিফায়েড ফেসবুক আইডিতে পোস্ট করে বেনজির দাবি করেছেন, আরাভ ওরফে রবিউল ওরফে হৃদয় নামে আমি কাউকে চিনি না। আমার সাথে তার এমনকি প্রাথমিক পরিচয়ও নাই।

আরাভের স্বর্ণের দোকান উদ্বোধন করতে বাংলাদেশ থেকে এক ঝাঁক তারকার দুবাইতে যাওয়ার পর থেকেই মূলত আলোচনার শুরু। তখনই সামনে আসে ২০১৮ সালে ৭ জুলাই ঢাকায় পুলিশের একজন পরিদর্শক মামুন এমরান খুনের আসামি এই আরাভ। এরপর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) প্রধান হারুন অর রশীদ সাংবাদিকদের বলেন, বিতর্কিত স্বর্ণ ব্যবসায়ী আরাভ খানের বিরুদ্ধে আদালতের ১২টি পরোয়ানা রয়েছে।

অল্প সময়ে কোটিপতি হওয়া আরাভ খানের সঙ্গে দেশের অপরাধজগতের শীর্ষ সন্ত্রাসী, মডেল, পুলিশের সাবেক কর্মকর্তা ও ব্যবসায়ীদের সম্পর্ক রয়েছে বলে পুলিশের সূত্র ব্যবহার করে কয়েকটি গণমাধ্যম সংবাদ প্রকাশ করেছে। এর মধ্যেই গতকাল শুক্রবার রাতে জার্মানভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ডয়েচে ভেলের ‘খালেদ মুহিউদ্দীন জানতে চায়’ টকশোতে আলোচনায় আসে র‍্যাবের এই সাবেক মহাপরিচালক (ডিজি) বেনজিরের নাম। এরপরই আজ বেনজির ফেসবুকে এই পোস্ট দিলেন।

পোস্টে বেনজীর লিখেছেন, সম্মানিত দেশবাসি, আমি আপনাদের সবাইকে আশ্বস্ত ও সম্পুর্ণ ভাবে নিশ্চিত করতে চাই যে “আরাভ ওরফে রবিউল ওরফে হৃদয় “ নামে আমি কাউকে চিনি না। আমার সাথে তার এমনকি প্রাথমিক পরিচয়ও নাই। আমি আমার ল’ এনফোর্সমেন্ট ক্যারিয়ার এর পূরোটা সময় খুনি , সন্ত্রাসী, ড্রাগ ব্যাবসায়ী, চোরাকারবারি, ভেজালকারি ও অপরাধীদের বিরুদ্ধে লড়াই করেছি কখনোই সখ্যতা নয়। আপনাদের অফুরান ভালোবাসা, সমর্থন ও সহযোগীতার জন্য অশেষ কৃতজ্ঞতা।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.