১০ জানুয়ারি থেকে চালু হবে পর্যটক এক্সপ্রেস

ঢাকা থেকে কক্সবাজারের পথে নতুন আন্তঃনগর ট্রেন ‘পর্যটক এক্সপ্রেস’ চলাচল শুরু হচ্ছে আগামী ১০ জানুয়ারি থেকে।

মঙ্গলবার বাংলাদেশ রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলের সহকারী চিফ অপারেটিং সুপারিনটেনডেন্ট মোহাম্মদ আবু বক্কর সিদ্দিকী ‘ঢাকা-কক্সবাজার-ঢাকা রুটে’ দ্বিতীয় এই ট্রেন চালুর দিনক্ষণ জানিয়েছেন।

এক চিঠিতে আবু বক্কর সিদ্দিকী বলেন, “ঢাকা থেকে কক্সবাজারের উদ্দেশে ‘পর্যটক এক্সপ্রেস’ ছাড়বে ভোর সোয়া ৬টায়। আর কক্সবাজার থেকে ঢাকার পথে ট্রেনটি ছাড়বে রাত ৮টায়। “

আগের ট্রেনটির মতই শুধু চট্টগ্রামে থেমে ঢাকা ও কক্সবাজারের মধ্যে চলাচল করবে ‘পর্যটক এক্সপ্রেস’। নতুন এ ট্রেনের নামকরণ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

এর আগে ‘কক্সবাজার এক্সপ্রেস’ চালু হয় ২০২৩ সালের ১ ডিসেম্বর, যার মধ্য দিয়ে ঢাকা-কক্সবাজার রুটে যাত্রীবাহী ট্রেন চলাচল শুরু হয়।

রেলওয়ে কর্মকর্তা আবু বকর সিদ্দিকীর চিঠিতে বলা হয়েছে, ‘পর্যটক এক্সপ্রেস’র ১৬টি কোচে মোট আসন সংখ্যা ৭৮৫টি। ‘ঢাকা-কক্সবাজার-ঢাকা রুটে’র এই ট্রেনটি চালানো হবে কোরিয়া থেকে আমদানি করা নতুন কোচ দিয়ে। এই ট্রেনের সাপ্তাহিক ছুটি রোববার।

কখন ছাড়বে, কখন পৌঁছাবে

৮১৫ নম্বর ট্রেন ‘পর্যটক এক্সপ্রেস’ কক্সবাজার থেকে রাত ৮টায় ছেড়ে ঢাকার কমলাপুর আসবে ভোর সাড়ে ৪টায়। মাঝে রাত ১০টা ৫০ মিনিটে চট্টগ্রামে থামবে।

সেখানে ২৫ মিনিট বিরতি দিয়ে রাত ১১টা ১৫ মিনিটে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছাড়বে এবং রাত ৩টা ৫০ মিনিটে ঢাকা বিমানবন্দর স্টেশনে পৌঁছাবে।

অন্যদিকে ঢাকার কমলাপুর থেকে ৮১৬ নম্বর ট্রেনটি প্রতিদিন ভোর ৬টা ১৫ মিনিটে ছেড়ে কক্সবাজার স্টেশনে পৌঁছাবে বিকাল ৩টায়।

যাত্রাকালে বিমানবন্দর স্টেশন থেকে ভোর ৬টা ৪৩ মিনিটে ছেড়ে বিরতহীনভাবে চট্টগ্রামে পৌঁছাবে সকাল ১১টা ২০ মিনিটে। সেখানে ২০ মিনিট বিরতি দিয়ে সকাল ১১টা ৪০ মিনিটে কক্সবাজারের উদ্দেশ্যে ছাড়বে।

গত বছরের ১ ডিসেম্বর প্রথমবারের মতো ঢাকা -কক্সবাজার রুটে যাত্রী পরিবহন শুরু করে ‘কক্সবাজার এক্সপ্রেস’। যাত্রীদের কাছে ভালো সাড়া পাওয়ায় এ রুটে আরও একটি ট্রেন চালানোর পরিকল্পনা করে বাংলাদেশ রেলওয়ে।

৬ ডিসেম্বর রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপকের কার্যালয় থেকে অতিরিক্ত মহাপরিচালকের (অপারেশন) কার্যালয়ে একটি প্রস্তাব যায়। তাতে নতুন বছরের প্রথম দিন ১ জানুয়ারি থেকে আরেকটি ট্রেন চালানোর অনুমোদন চাওয়া হয়। ‘পালংকি’,‘তরঙ্গ এক্সপ্রেস’ এবং ‘প্রবাল এক্সপ্রেস’ এই তিনটি নাম প্রস্তাব করা হয় রেলওয়ের পক্ষ থেকে।

সেদিন রেলভবনে রেলপথ মন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজন সংবাদ সম্মেলনে জানিয়েছিলেন ১ জানুয়ারি থেকে নতুন এই চালুর প্রস্তাব করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন পাওয়ার পর ট্রেনটি চালু হবে।

সোমবারের বাংলাদেশ রেলওয়ে জানায়, ‘ঢাকা-কক্সবাজার-ঢাকা রুটে’ চলাচলের জন্য নতুন ননস্টপ আন্তঃনগর ট্রেনের নাম ‘পর্যটক এক্সপ্রেস’ প্রধানমন্ত্রী অনুমোদন করেছেন।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.