মালয়েশিয়ায় স্বদেশি অপহরণের দায়ে মৃ’ত্যুদণ্ডের মুখোমুখি ৪ বাংলাদেশি

মালয়েশিয়ায় এক প্রবাসী বাংলাদেশিকে অপহরণ করে মুক্তিপণ দাবির দায়ে বাংলাদেশি নারী, তিনজন পুরুষ ও একজন মালয়েশিয়ান নারী এখন আদালতের বিচারে মৃত্যুদণ্ড বা যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশের মুখোমুখি হয়েছেন।

এক নিরীহ বাংলাদেশিকে অপহরণ করে স্বজনের কাছে ৫০ হাজার রিংগিত (বাংলাদেশি ১০ লাখ টাকা) মুক্তিপণ দাবি করেছিলেন অপহরণকারীরা।
শুক্রবার বিকেলে এই তথ্য প্রকাশ করেছে দেশটির জাতীয় দৈনিক ‘সিনার হারিয়ান’।
এই পাঁচ অপহরণকারীকে মালয়েশিয়ার কাজাং ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে শুনানির জন্য হাজির করা হয়েছিল।

পত্রিকাটির প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, গত ৩০ আগস্ট রাতে জালান দামাই মেওয়াহ ১ এর পাসার মিনি মার্কেটের (মুদির দোকান) সামনে থেকে বাংলাদেশি সোহেল রানা (৩৯) নামে এক যুবককে অপহরণ করে এই পাঁচ অপহরণকারী।
অভিযোগ পেয়ে স্থানীয় পুলিশ কাজাং টেকনোলজি শহরের একটি বাড়ি থেকে সোহেলকে উদ্ধার করা হয়।

অপহরণকারীরা হলেন- বাংলাদেশি নাগরিক রায়হান হোসেন (২৮), সোরাফ মিয়া (৩৩), নুসরাত জাহান বিপাশা (২৬), মো. জসিম (৩২) ও তার মালয়েশিয়ান স্ত্রী ফরিদাহ জিয়া স্লী রমেশ (২৭)।

তাদের বিরুদ্ধে মালয়েশিয়ার অপহরণবিরোধী আইন ১৯৬১ এর ৩য় ধারার (ক) উপ-ধারায় স্থানীয় পুলিশ অভিযোগ দায়ের করেছেন।
এই ধারায় তাদের অপরাধ প্রমাণিত হলে আদালত মৃত্যুদণ্ড কিংবা যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দিতে পারেন এবং সঙ্গে দোররা মারার আদেশও হতে পারে বলে আদালত সূত্রে জানা গেছে।

বিচারক নুরুল হুসনাহ আমরানের বেঞ্চে মামলাটি পরিচালনা করা হচ্ছে।
আসামি মো. রায়হান ও জসিমের পক্ষের আইনজীবী ছিলেন মিস্টার তান চেং ইয়েং এবং অন্য তিন আসামির পক্ষে আদালতে কোনো আইনজীবী ছিল না।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.