দুর্নীতি-অনিয়মের অভিযোগ, সিলেট পাসপোর্ট অফিসে দুদক

সিলেট বিভাগীয় পাসপোর্ট ও ভিসা কার্যালয়ে অভিযান চালিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) একটি দল। বৃহস্পতিবার দুদকের দলটি হঠাৎ সেখানে অভিযান চালায়। সুনির্দিষ্ট বিভিন্ন অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে প্রাথমিক তদন্তের অংশ হিসেবে তাঁরা পাসপোর্ট কার্যালয়ে যান বলে জানিয়েছেন দুদকের সিলেট কার্যালয়ের উপপরিচালক নূর-ই-আলম।

এ সময় কাউকে আটক করা না হলেও অনিয়মের তথ্য পেয়েছে দুদক। অভিযানে নেতৃত্ব দেন দুদকের সহকারি পরিচালক আশরাফ উদ্দিন।

 

দুদক সিলেট সমন্বিত কার্যালয়ে উপ পরিচালক নুর ই আলম অভিযানের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, সুনির্দিষ্ট কিছু অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে দুদকের একটি টিম সহকারী পরিচালক আশরাফ উদ্দিনের নেতৃত্বে বিভাগীয় পাসপোর্ট অফিসে যায়। অভিযানের প্রতিবেদন প্রধান কার্যালয়ে পাঠানো হবে।

প্রতিবেদন অনুসারে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তবে প্রধান কার্যালয় থেকে এ বিষয়ে প্রাথমিক তদন্ত করার অনুমোদন পেয়েছি। তাই তদন্তের স্বার্থে বৃহস্পতিবার দুপুরে দুদক সিলেট কার্যালয়ের অভিযান চালানো হয়।

জানা গেছে, সিলেট বিভাগীয় পাসপোর্ট ও ভিসা অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারিদের বিরুদ্ধে গ্রাহক হয়রানির নানা অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে।

সম্প্রতি টিআইবির জরিপে দুর্নীতির চিত্রে উঠে এসেছে পাসপোর্ট ও ভিসা অফিসের নাম।

ওই প্রতিবেদন ঘেটে দেখা গেছে, অঞ্চল ভিত্তিক অনিয়ম দুর্নীতিগ্রস্ত প্রতিষ্ঠান হিসেবে সিলেটে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে সিলেট পাসপোর্ট ও ভিসা অফিস।

টিআইবির প্রতিবেদন অনুযায়ী, সিলেটে ৫৬ শতাংশ মানুষই দুর্নীতির শিকার হয়েছেন। এর মধ্যে সিলেটে পাসপোর্ট সংক্রান্ত কাজে দুর্নীতির শিকার ৫১ দশমিক ৬ শতাংশ পুরুষ ও ৭০.৭ শতাংশ নারী।

সে হিসেবে সিলেটে দুর্নীতির সবচেয়ে বড় খাত হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে সরকারের সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান বিআরটিএ। আর তালিকায় দ্বিতীয় অবস্থানে সিলেট আঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিস।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.