জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি পুতিনের

রাশিয়ার রাজধানী মস্কোর একটি কনসার্ট হলে হামলার ঘটনাকে ‘বর্বর সন্ত্রাসী হামলা’ বলে আখ্যায়িত করেছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। একই সঙ্গে তিনি এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার হুঁশিয়ারি দেন। স্থানীয় সময় শনিবার টেলিভিশনে দেয়া এক ভাষণে এ হুঁশিয়ারি দেন পুতিন। পাশাপাশি রোববার রাশিয়ায় জাতীয় শোক ঘোষণা করেছেন রুশ প্রেসিডেন্ট। খবর বিবিসি ও তাস।

ভাষণে এ ঘটনা নিয়ে এ প্রথম কথা বললেন পুতিন। বলেন, আমি আজ আপনাদের সঙ্গে বর্বর সন্ত্রাসী হামলা নিয়ে কথা বলছি, যার শিকার হয়েছেন শতাধিক নিরীহ মানুষ। হামলাকারীরা ভেবেছিল, তারা খুব সহজেই সীমান্ত পেরিয়ে ইউক্রেনে পালিয়ে যেতে পারবে। কিন্তু সীমান্ত অতিক্রম করার আগেই চার বন্দুকধারীকে গ্রেফতার করে আমাদের ফেডারেল সিকিউরিটি সার্ভিস (এফএসবি)।

রুশ প্রেসিডেন্ট আরো বলেন, যে চার সন্ত্রাসী বন্দুক হামলা চালিয়েছে, তাদের আটক করা হয়েছে। প্রাথমিক তথ্য অনুসারে, হামলা শেষে তারা ইউক্রেনের দিকে যাচ্ছিল এবং তারা যাতে খুব সহজেই সীমান্ত অতিক্রম করতে পারে, সে প্রস্তুতিও নিয়ে রাখা হয়েছিল।

এফএসবি’র দাবি, এ হামলার ঘটনায় জড়িত অপরাধীদের সঙ্গে ইউক্রেনের যোগাযোগ ছিল। এরই মধ্যে হামলায় জড়িত সন্দেহে ১১ জনকে আটক করা হয়েছে। সংস্থাটি বলছে, আটকদের মধ্যে চারজন সরাসরি হামলায় জড়িত ছিলেন।

স্থানীয় সময় শুক্রবার (২২ মার্চ) রাত ৮টার দিকে একটি ক্রোকাস সিটি হলের ভেতরে ঢুকে এলোপাথাড়ি গুলি চালায় একদল অস্ত্রধারী। রুশ বার্তা সংস্থা ইন্টারফ্যাক্স জানিয়েছে, পাঁচজন বন্দুকধারী এ হামলা চালায়। প্রথমে গুলিবর্ষণের পর সেখানে গ্রেনেড বা বোমা নিক্ষেপ করা হয়। তাতে হলটিতে আগুন ধরে যায়। আর তাতেই ব্যাপক হতাহতের ঘটনা ঘটে।

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.