চতুর্থ দিনেই ১০০ কোটির ব্যবসা

চতুর্থ দিনেই ১০০ কোটির ব্যবসা।

ভক্তদের ‘ইদি’ হিসেবে উপহার দিয়েছিলেন ‘ভারত’। আর ভক্তরাও তাই ভাইজানের ইদের ঝুলি ভরতি করে দিলেন। তিনিই যে ভক্তদের কাছে ‘সুলতান’, তা আরেকবার প্রমাণিত হল। বুধবারই ইদ উপলক্ষে দেশের ৪৭০০টি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছিল ‘ভারত’। তারপরেই এহেন গগনচুম্বী বক্স অফিস সাফল্য! প্রথম দিনেই ৪২.৩০ কোটি টাকা আয় করে রেকর্ড গড়েছিল সলমন-ক্যাটরিনা অভিনীত এই ছবি। তৃতীয় দিনেও প্রত্যাশাকে ছাপিয়ে গিয়ে আয় হয়েছে প্রায় ৯৬ কোটি টাকা। আর চতুর্থ দিনে ‘ভারত’ ছুঁয়ে ফেলল ১০০ কোটির ক্লাব।

বলিউডে যে সমস্ত ছবি এত তাড়াতাড়ি ১০০ কোটির ক্লাবে নাম লেখাতে সক্ষম হয়েছে, তার মধ্যে ভাইজানের ছবির সংখ্যাই সবথেকে বেশি। সলমন খানের মোট ১৪টি ছবি ১০০ কোটির ক্লাবের তালিকায় রয়েছে। সলমনের পরই নাম রয়েছে অক্ষয় কুমার এবং অজয় দেবগণের। এই দুই অভিনেতারই ১০টি করে ছবি বক্স অফিসে ১০০ কোটির ক্লাবে নাম লিখিয়েছে। তবে, এই তালিকায় সামান্য পিছিয়ে রয়েছেন বলিউড বাদশা শাহরুখ খান। কিং খানের ৭টি ছবি ১০০ কোটির ক্লাবে প্রবেশ করে তাঁকে এনে দিয়েছে তালিকার তৃতীয় স্থান। অন্যদিকে, মিস্টার পারফেকশনিস্ট অর্থাৎ আমির অভিনীত মোট ৬টি ছবি ১০০ কোটি টাকা আয় করতে পেরেছে। বাণিজ্য বিশ্লেষক তরণ আদর্শ টুইট করে ‘ভারত’-এর এই গগনচুম্বী সাফল্যের কথা ঘোষণা করেছেন। বক্স অফিসের রিপোর্ট অনুযায়ী, ‘ভারত’ ছাপিয়ে গিয়েছে ‘টাইগার জিন্দা হ্যায়‘, ‘প্রেম রতন ধন পায়ো’ এবং ‘সুলতান’-এর রেকর্ডকেও।

প্রসঙ্গত, এর আগেও সলমনের ৩টি ছবি ‘বজরঙ্গি ভাইজান’ (২০১৫), ‘সুলতান'(২০১৬), ‘টাইগার জিন্দা হ্যায়‘ (২০১৭) ছুঁয়েছিল ৩০০ কোটির বেঞ্চমার্ক। ‘ভারত’-ও যে সেই পরিমাণ ব্যবসা করতে পারবে, তা সেই আশায় বুক বেঁধেছেন সলমন অনুরাগীরা।

 

আরও খবর
আপনার কমেন্ট লিখুন

Your email address will not be published.